সংবাদ শিরোনাম
ওমিক্রন নিয়ে উদ্বেগ-সাউথ আফ্রিকা থেকে আগত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৭ জনের বাড়িতে লাল পতাকা ব্রাহ্মণবাড়িয়া সাংবাদিক ইউনিয়ন কার্যকরী কমিটি অনুমোদিত।। দীপক চৌধুরী বাপ্পী সভাপতি ও মনির হোসেন সাধারণ সম্পাদক সাহিত্য একাডেমির বর্ণাঢ্য আয়োজনে বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশান দিবস উদযাপন তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে সরাইল ও নবীনগরে চেয়ারম্যান পদে আ’লীগের ভরাডুবি প্রবাসী পিতার ভোট দিতে এসে পুত্র আটক আগামীকাল সাহিত্য একাডেমির নানান আয়োজনে বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশান দিবস আগামী ৫ জানুয়ারি ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন।। কাল থেকে আ’লীগের প্রার্থী বাছাই শুরু নাসিরনগরে যু্বলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত সরাইল উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীদের দল থেকে বহিস্কার বিজয়নগরে ১০ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৭৫ জন ও অন্যান্য পদে ৪৬৩ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা
সরাইলে চোলাই মদ তৈরির কারখানায় ইট পাটকেল

সরাইলে চোলাই মদ তৈরির কারখানায় ইট পাটকেল

সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার কালিকচ্ছ ইউনিয়নের দত্ত পাড়া মিঠুন রবি দাসের বাড়িতে চোলাই মদ তৈরির কারখানায় ইট পাটকেল নিক্ষেপ। 

দীর্ঘদিন যাবৎ চোলাই মদ তৈরির কারখানা চলে আসছিল। এবিষয়ে উপজেলা আইন শৃংখলা মিটিংয়ে প্রায় সভায় প্রতিবাদ করে আসছিল কমিটির সদস্যরা।
বৃহস্পতিবার সন্ধার পর মদ তৈয়ারী কারখানায় এলাকার যুবকরা ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে এত নারী পুরুষসহ ৮ জন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় মিঠুন রবি দাস বাদী হয়ে ১৬ জন আসামী করে  সরাইল থানা মামলা দায়ের করেছে।
দিপালী রবি দাস জানান, সলিম, রাহাত, সজিব, রাসেলের নেতৃত্বে আমদের বাড়িতে হামলা করে বাড়িঘর ভাংচুর লোটপাট করেছে। সঞ্জয় রবি দাস জানান, হামলাকারীরা পরিকল্পিতভাবে আমাদেরকে উচ্ছেদ করা হয়েছেে।

হাজী মানিক মিয়া জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধায় মদ তৈয়ারী ও বিক্রয়কে কেন্দ্র করে সাজন রবি দাসের ছেলে রিপন রবি দাস সুমনের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পযার্য়ে সুমনকে মারধর করে  রিপন রবি দাস উত্তেজিত হয়ে বলে প্রকাশ্যে মদ বিক্রয় করা ঘোষনা দেয় এরপর তাদের মধ্যে উত্তেজনা বেড়ে যায়। 
মোঃ কামাল মিয়া জানা, প্রকাশ্যে মদ বিক্রয় করা ঘোষনা দেয়ার পর তাদের মধ্যে উত্তেজনা বেড়ে যায়,উভয়ের মধ্যে কিছু ই পাটকেল হয়। চামার বাড়িঘর ভাংচুর বিষয়ে জানাতে চাইলে তিনি জানা, চামার বাড়ির লোকজন নিজেদের বাড়িঘর নিজেরা ভাংচুর করে আলামত তৈয়ার করে মামলা দায়ের করেন। “প্রায় ৩০ বছর ধরে চোলাই মদ তৈরির সঙ্গে যুক্ত পরিবারগুলিকে এই ব্যাবসা থেকে সরিয়ে আনার জন্য অনেকবার চেষ্টা করেছি। তাদেরকে নিয়ে কয়েকবার সভাও করেছি। কিন্তু ওরা নানা অজুহাত দেখিয়ে চোলাই মদ তৈরির কারবার থেকে সরে আসেনি।” উল্টে ওই পরিবারগুলিতে বিবাহ সূত্রে আসা আত্মীয়রাও মদ তৈরির ব্যবসা শুরু করায় দিনে দিনে গ্রামে চোলাইয়ের রমরমা বেড়েছে বলে জানান তিনি।
ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর। 

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com