সংবাদ শিরোনাম
পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বিভিন্ন মহলের ঈদ শুভেচ্ছা  ব্রাহ্মণবাড়িয়া বাতিঘর এর উদ্যোগে দেড়শতাধিক অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে পৌর মেয়র নায়ার কবিরের ঈদ শুভেচ্ছা নাসিরনগরে পাঁচশত অসহায় পরিবারের মধ্যে ঈদ সামগ্রী বিতরন  হেফাজতের তাণ্ডব – ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আরো ৮ জন গ্রেপ্তার।। এ পর্যন্ত গ্রেফতার -৪৬৫ বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল ও সরকারি স্থাপনায় তাণ্ডব ঠেকাতে না পারায় আমি লজ্জিত; মোকতাদির চৌধুরী এমপি দুই শতাধিক অসহায় হতদরিদ্র ও কর্মহীন মানুষের মাঝে মোকতাদির চৌধুরী এমপি’র ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ হেফাজতের তাণ্ডব- ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আরো ৩ জন গ্রেফতার।। এ পর্যন্ত গ্রেফতার -৪৫৭ ভৈরবে র‍্যাবের পৃথক দুটি অভিযানে চার মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার  কমলগঞ্জ পৌরসভায় ইমাম মুয়াজ্জিনদের উৎসব ভাতা প্রদান
একজন ফুটবলার থেকে সংগীত শিল্পী হওয়া হাসান পারভেজ সোহাগের গল্প

একজন ফুটবলার থেকে সংগীত শিল্পী হওয়া হাসান পারভেজ সোহাগের গল্প

নাজমুল ইসলাম, নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি

হাসান পারভেজ সোহাগ নিজেকে প্রথম দিকে একজন ফুটবলার হিসেবে পরিচিত করলেও এখন সংগীত চর্চায় নিজেকে মনোনিবেশ করছেন।
তিনি নবীগঞ্জ উপজেলা তথা সারা সিলেটে কয়েকজন ভাল গোল রক্ষকের মধ্যে একজন ছিলেন।নবীগঞ্জ উপজেলা রাজাবাদ গ্রামে এক মধ্যবৃত্ত পরিবারে ১৯৮৯ সালের ১২ই মে জন্ম গ্রহণ করেন। বাবা আবুল কালাম আজাদ অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা, মা ফাতেমা বেগম গৃহিণী।এবং বড় বোন ফারহানা আক্তার কেয়া,ছোট দুই ভাই জাহিদ হাসান জয় ও শাহরিয়ার হাসান রাজ, এক বোন তিন ভাইয়ের সুখি পরিবার।সোহাগের মা বাবা দু’জনই সংগীত প্রেমী, মায়ের গানের গলা খুবই ভাল ছিল এবং উনার নিজেরই সংগীত চর্চায় খুব আগ্রহ ছিল কিন্তূ পারিবারিক কারণে তা করা সম্ভব হয়নি। বিয়ের পর স্বামী সংসার নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পরেন কিন্তূ একা একা কালি গলায় মাঝে মধ্যে গান করতেন। ছোটবেলা থেকেই মায়ের কন্ঠে গান শুনে বড় হয়েছেন। বাবাও যেমন ভাল ফুটবল খেলতেন তেমনি গানও করতে খোব ভাল।বাবার চাকরির সুবাদে ছোটবেলা থেকেই ঢাকা কেন্টলমেন্ট এরিয়াতে বসবাস করতেন এবং সেখানে একটি গানের ইস্কুলেও ভর্তি হয়েছিলেন যেহেতু মা,বাবা দু’জনই সংগীত প্রেমী তাই তাদের ইচ্ছাতেই।আট বছর বয়সে বাবা অবসরপ্রাপ্ত হলে নিজ এলাকা নবীগঞ্জ চলে আসেন স্বপরিবারে, নবীগঞ্জ নিপুন সাংস্কৃতিক নামে একটি সংগঠনে উস্তাদ, জি এম সোনা মিয়ার কাছে গান চর্চা করতে থাকেন। তার পাশাপাশি খেলাদোলায় মন দেন এবং বেশ নাম দামও কামিয়ে নেন সোহাগ। তারপর নবীগঞ্জ একটি গানের স্কুলে ভর্তি হন।গানের জগতে উনার মা, বাবার অবদান সবচেয়ে বেশি। প্রাথমিক গানের গুরু বলতে উনার মাকেই বলে থাকেন।সোহাগ ফিল্মের গান বেশি শুনতেন বিশেষ করে এন্ড্রু কিশোরের গান উনার ভাল লাগে।আইডল হিসেবে সংগীত শিল্পী, খালিদ হাসান মিলু।ক্লোজাপ ওয়ান ২০১২ সালে, “যে প্রেম স্বর্গ থেকে আসে” গান গেয়ে সেরা আটার (১৮)এর মধ্যে স্থান পান। এবং 7UP এমপি এল, ২০১৬ তে সেমিফাইনালিস্ট হন। কিন্তূ বেশি দুর যেতে পারেনিতবে হাল ছাড়েন নি সোহাগ।এবছরের শুরুতেই “সানডে মিউজিক স্টেশনে ইউটিউব লিংকে” ক্লোজাপ ওয়ানের সেরা কন্ঠ শিল্পী সালমার সাথে তার নতুন এ্যালবাম “রঙিলা বাড়ই” নামে প্রকাশিত হয়।”হাসান পারভেজ সোহাগ বলেন আমি নবীগঞ্জের সন্তান আমার এসব পাওয়া শুধু আমার নয়, এবস নবীগঞ্জ বাসীর জন্য।  তাই আমি নবীগঞ্জ বাসীর কাছে ভালবাসার সহযোগিতা কামনা করি। এবং সাংবাদিক ভাইদের প্রতিও আমার আকুল আবেদন, আপনাদের ভালবাসা ও সহযোগিতা আশারাখি।

ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর।    

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com