সংবাদ শিরোনাম
নাসিরনগরে উৎসবমুখর পরিবেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন পালিত আশুগঞ্জে র‍্যাবের অভিযানে গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক সরাইলে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস পালিত সরাইলে জাতির জনকের শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে চিত্রাংকন ও রচনা প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরণ কমলগঞ্জে বদরুন নাহার ভূঁইয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের  উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালিত আগামীকাল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিনে জেলায় লক্ষাধিক করোনা প্রতিশোধক টিকা দেয়া হবে; আল- মামুন সরকার দারিদ্র্য বিমোচনে সফলতা অর্জন করে শেখ হাসিনা জাতিসংঘের ‘‘চ্যাম্পিয়ন অব দি আর্থ’’ খেতাব অর্জন করেছেন ; আল- মামুন সরকার কমলগঞ্জে গাছের সাথে ধাক্কা লেগে প্রাণ গেলো মোটর সাইকেল আরোহীর কমলগঞ্জে চা-শ্রমিকের বসতঘর ভেঙ্গে ফেলায় বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন  রোটারী ক্লাব অব ব্রাহ্মণবাড়িয়া তিতাসের বৃক্ষরোপন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তিনটি পৌরসভার ১০ টি ওয়ার্ডকে রেড জোন ঘোষনা।। রেড জোনে যেসব বিধিনিষেধ মানতে হবে

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তিনটি পৌরসভার ১০ টি ওয়ার্ডকে রেড জোন ঘোষনা।। রেড জোনে যেসব বিধিনিষেধ মানতে হবে

স্টাফ রিপোর্টার//সময়নিউজবিডি 

বৈশ্বিক করোনা ভাইরাস (কুভিড-১৯) নিয়ন্ত্রণে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভা, নবীনগর পৌরসভা ও কসবা পৌরসভার ১০ টি ওয়ার্ডকে রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত করে লকডাউন করা হয়েছে। যা আগামী ৪ জুলাই পর্যন্ত কার্যকর থাকবে।
সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধে, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মল) আইন, ২০১৮ এর সংশ্লিষ্ট ধারায় ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্তৃপক্ষ কর্তৃক কোভিড-১৯ রোগের সংক্রমণ ও নিয়ন্ত্রণে রোগের চলমান ঝুঁকি বিবেচনায় জন-চলাচল/ জীবনযাত্রা কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নিম্নোক্ত বর্ণিত এলাকাকে ২৩ জুন ২০২০ থেকে ৪ জুলাই ২০২০ পর্যন্ত লাল অঞ্চল (Red Zone) ঘোষণা  করা হয়েছেঃ
(১) ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের পাইকপাড়া ও কালাইশ্রীপাড়া, ৫ নং ওয়ার্ডের  মধ্যপাড়া এবং ৮ নং ওয়ার্ডের কাজীপাড়া এলাকা; 
(২) নবীনগর উপজেলাধীন নবীনগর পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের হাসপাতালপাড়া ও পশ্চিমপাড়া, ৩ নং ওয়ার্ডের টিএনটি পাড়া, ৪ নং ওয়ার্ডের হাসপাতাল পাড়া ও কলেজ পাড়া এবং ৮ নং ওয়ার্ডের ভােলাচং দাসপাড়া এলাকা;(৩) কসবা উপজেলাধীন কসবা পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের আড়াইবাড়ি, ৫ নং ওয়ার্ডের শীতলপাড়া এবং ৭ নং ওয়ার্ডের সাহাপাড়া এলাকা।
প্রাথমিকভাবে রেড জোনের জন্য যেসব বিধিনিষেধ নির্ধারণ করা হয়েছে সেগুলা নিম্নরূপঃ ১.স্বাস্থ্যবিধি মেনে বর্ধিত সময়ে কৃষিকাজ কাজ করা যাবে। ২. স্বাস্থ্যবিধি মেনে গ্রামাঞ্চলে কলকারখানা ও কৃষি পণ্য উৎপাদন কারখানায় কাজ করা যাবে। তবে শহরাঞ্চলে সব বন্ধ থাকবে। ৩. বাসা থেকেই অফিসের কাজ করতে হবে। ৪. কোন ধরণের জনসমাবেশ করা যাবে না। কেবলমাত্র অসুস্থ ব্যক্তি হাসপাতালে যেতে পারবেন। ৫. স্বাস্থ্যবিধি মেনে শুধুমাত্র প্রয়োজনে বাসা থেকে বের হতে পারবেন। রিক্সা ভ্যান, সিএনজি, ট্যাক্সি বা নিজস্ব গাড়ী চলাচল করবে না। ৬. সড়ক পথ, নদীপথ ও রেলপথে রেড জোনের ভিতরে কোন যান চলাচল করবে না। ৭. রেড  জোনের ভিতরে ও বাহিরে মালবাহী নৌযান ও জাহাজ কেবলমাত্র রাতে চলাচল করতে পারবে। ৮. প্রত্যেক এলাকায় সীমিত পরিমাণে প্রবেশ ও বহিরাগমন পয়েন্ট নির্ধারণ করে কঠোরভাবে জনগণের যাতায়াত
নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। ৯. রেড জোনের অন্তর্গত মুদি দোকান ও ওষুধের দোকান খোলা থাকবে। রেষ্টুরেন্ট ও খাবার দোকানে কেবলমাত্র হোম ডেলিভারী সার্ভিস চালু থাকবে। বাজারে শুধুমাত্র প্রয়োজনে যাওয়া যাবে। তবে শপিংমল, সিনেমা হল, জিম/স্পোর্স কমপ্লেক্স, বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ থাকবে। ১০. আর্থিক লেনদেন বিষয়ক কার্যক্রম যেমন টাকা জমাদান/ উত্তোলন স্বাস্থ্যবিধি মেনে কেবলমাত্র এটিএম-এর মাধ্যমে করা যাবে। তবে সীমিত ব্যাংকিং ব্যবস্থা চালু করা যেতে পারে। ১১. এলাকার রোগীদের পর্যাপ্ত কোভিড-১৯ নমুনা পরীক্ষা করা হবে। সনাক্ত রোগীরা হোম আইসোলেশনে বা প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে থাকবে। ১২. শুধুমাত্র মসজিদের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা মসজিদ/ উপাসনালয়ে সামাজিক দুরত্ব রেখে ইবাদত করতে পারবেন। ১৩. সাধারণভাবে রেড জোন ২১ দিনের জন্য বলবত হবে। পরিস্থিতির উন্নতি হলে রেড জোন পরিবর্তন করা হবে।।
এ ছাড়া রেড জোনসহ বাংলাদেশের সকল অঞ্চলে নিম্নোক্ত সাধারণ নিয়মাবলী পালন করতে হবেঃ 
১. সকলকে বাধ্যতামূলক মাস্ক পরতে হবে। হাত ধোয়া জীবানুমুক্তকরণ ও পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। ২. করোনা রোগে সংক্রমণ সনাক্তকরণ, তাদের আইসোলেশন ও চিকিৎসা প্রদানের ব্যবস্থা করতে হবে। ৩. সংক্রমিত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের কন্ট্যাক্ট ট্রেসিং ও কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে হবে। ৪. স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র, হাসপাতাল ও জরুরী সেবামূলক প্রতিষ্ঠান খােলা থাকবে। অসুস্থ ব্যক্তি পরিবহনকারী যান। ব্যক্তিগত গাড়ী ও অ্যাম্বুলেন্স কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে চলাচল করবে। ৫. সকল প্রকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান- স্কুল, কলেজ, কোচিং সেন্টার পরবর্তি নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। ৬. এ সকল কার্যক্রমের তদারকির জন্য কার্যকরী সামাজিক সমপৃক্ততা এবং মাঠকর্মীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে।
ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর।    

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com