সংবাদ শিরোনাম
সাংবাদিক দীপক চৌধুরী বাপ্পির মায়ের পরলোকগমন  বিজয়নগরের শ্রীপুরে এক মাদ্রাসার দপ্তরির বিরুদ্ধে শত বছরের রাস্তা দখল করে প্রতিবন্ধকতা তৈরির অভিযোগ  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত  বিজয়নগর কোয়ারেন্টাইনে ভারত ফেরতদের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করলেন ইউএনও বিজয়নগরে যথাযোগ্য মর্যাদায় সরকারি নির্দেশনা মেনে পবিত্র ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত  আশুগঞ্জে র‍্যাবের পৃথক দুটি অভিযানে গাঁজা ও মোটরসাইকেলসহ ৪ জন গ্রেফতার  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সংস্কৃতিসেবীদের নগদ অর্থ উপহার দিলেন জেলা প্রশাসক  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বজ্রপাতে একজনের মৃত্যু  সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর ডটকম পরিবারের ঈদ শুভেচ্ছা  কৃষকলীগ নেতা নাজির মিয়ার উদ্যোগে বিজয়নগরে ৬শত পরিবরের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ 
প্রানপন চেষ্টা করেও স্বামীকে বাঁচাতে পারলেন না স্ত্রী

প্রানপন চেষ্টা করেও স্বামীকে বাঁচাতে পারলেন না স্ত্রী

সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর রিপোর্ট 
আয়শার বাঁধা উপেক্ষা করেই এলোপাতাড়ি কোপের একপর্যায়ে মারত্নক জখম হন রিফাত

প্রায় দুই মাস আগে ছাত্রলীগ নেতা রিফাত শরীফের সাথে বিয়ে হয় আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির। এরপরই আয়শার সাবেক স্বামী পরিচয় দিয়ে দৃশ্যপটে হাজির হয় সন্ত্রাসী নয়ন বন্ড।

নিজেকে আয়শার সাবেক স্বামী দাবি করে। এরমধ্যে নয়ন বন্ড আয়শার ফেসবুক আইডি হ্যাক করে আয়শার ছবি দিয়ে আপত্তিকর পোস্ট দিতে থাকলে বিরোধ চরম মাত্রায় পৌছায়। এসব ঘটনার সূত্র ধরেই রিফাতকে কুপিয়ে হত্যা করা হয় বলে জানান পরিচিতরা ।

আয়শার বাঁধা উপেক্ষা করেই এলোপাতাড়ি কোপের একপর্যায়ে মারত্নক জখম হন রিফাত
বুধবার সকাল ১০টা ২০ মিনিটে বরগুনা সরকারি কলেজ গেটের সামনে সাবেক স্বামী নয়ন বন্ড প্রকাশ্যে কোপাতে থাকে রিফাতকে। আয়শার বাঁধা উপেক্ষা করেই এলোপাতাড়ি কোপের একপর্যায়ে মারত্নক জখম হন রিফাত। আশঙ্কাজনক অবস্থায় প্রথমে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান। এ কাজে নয়নকে সহযোগীতা করেন রিফাত ফরাজী, রিশান ফরাজী এবং রাব্বি আকন নামের তিন যুবক।

রিফাত বরগুনা সদর উপজেলার ৬নং বুড়িরচর ইউনিয়ানের দুলাল শরীফের পুত্র। আর নয়ন বন্ড বরগুনার পৌরসভার ধানসিরি রোর্ডের আবুবকর সিদ্দিক এর ছেলে। আর নয়নকে সহযোগীতা করা রিফাত ফরাজী, রিশান ফরাজী সাবেক এমপি ও বর্তমান জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ দেলোয়ার হোসেনের ভায়রা দুলাল ফরাজির পুত্র।

এ বিষয়ে বরগুনা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ আবির মোহাম্মাদ হোসেন বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। আসামিদের ধরতে তাদের বাসায় তল্লাশি চালানো হয়েছে। অভিযান অব্যাহত আছে। তবে এখন পযন্ত লিখিত অভিযোগ পাননি বলে জানান তিনি।

সূত্রঃ আজকের পত্রিকা। 

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com