সংবাদ শিরোনাম
বিজয়নগরে আগামী ৭ মার্চ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রথমবারের মত মুদ্রণশিল্প মালিকদের পরিবেশ অধিদপ্তরের নিবন্ধন ওপারে চলে গেলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম দ্বিতীয়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হওয়ায় নায়ার কবিরকে বিভিন্ন মহলের ফুলেল শুভেচছা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রুবেলের গাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা ও ভাংচুর।। আহত-০২।। গ্রেপ্তার -০২ বীর মুক্তিযোদ্ধা হুমায়ুন কবির খান স্মৃতি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় মেয়াদ মেয়র নির্বাচিত হওয়ায় নায়ার কবিরকে বিজয়নগর যুবলীগসহ বিভিন্ন সংগঠন ও বিশিষ্টজনদের ফুলেল শুভেচ্ছা অব্যাহত এবার কাউন্সিলর হিসেবে ইন ও আউট হলেন যারা নাছিমার সাথে দ্বন্দ্বে ৮ মাস না পেরোতেই বান্দরবান বদলী বিজয়নগরের ইউএনও আরাফাত নাসিরনগরে অগ্নিকান্ডে দুটি ঘর পুড়ে ভষ্মীভূত।। সাংসদের দুঃখ প্রকাশ ও আর্থিক সহায়তা প্রদানের আশ্বাস
ধামরাইয়ে অপহরণের পাঁচদিন পর শিশু মুবিনের মরদেহ উদ্ধার

ধামরাইয়ে অপহরণের পাঁচদিন পর শিশু মুবিনের মরদেহ উদ্ধার

মোঃ মামুন রেজা ( ধামরাই) প্রতিনিধি

ঢাকার ধামরাইয়ে মুবিন নামের ৫ বছরের এক শিশু অপহরণের পাঁচ দিন পর মরদেহ উদ্ধার করেছে ধামরাই থানা পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আজিজুল(২৮) নামে এক জনকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। আজিজুল উপজেলার মঙ্গলবাড়ি গ্রামের জয়নাল এর ছেলে। শিশু মুবিন ধামরাই উপজেলার বাইশাকান্দা ইউনিয়নের মঙ্গলবাড়ি গ্রামের প্রবাসী আব্দুল করিমের দ্বিতীয় ছেলে।
পারিবারিক সূত্রে যানা যায়, শিশু মুবিন চকলেট কিনতে বাড়ির পাশে দোকানে যায় । কিন্তু এরপর আর বাড়িতে ফিরে আসেনি। তাকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে পায়নি তার স্বজনরা। এ ঘটনায় গত শনিবার রাতে শিশুর মামা ধামরাই থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে । ঘটনার দিন রাতেই তাদের টয়লেটের কাছে একটি চিরকুট পাওয়া গেছে। চিরকুটে লেখা ছিল মুবিনের কথা ২৪ ঘণ্টা স্মরণ রাখবে, এছাড়া একটি মোবাইল নম্বরও লেখা ছিল।
চিরকুটের সূত্র ধরে পুলিশ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে একই এলাকার মফিজ উদ্দিনের বাড়ির কেয়ারটেকার অভিযুক্ত আজিজুল হককে আটক করে।
পরবর্তীতে ধামরাই বেনিপুর মসজিদের উত্তর পাশে বুধবার (১১ ডিসেম্বর) ভোররাতে ওই শিশু মুবিনের মরদেহ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। পরে ময়নাতদন্তের জন্য শিশু মুবিনের মরদেহ  শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ।
এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ধামরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে শিশুটিকে হত্যার পর মরদেহ নদীর মধ্যে ফেলে রেখে গেছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে।


ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর।    

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com