সংবাদ শিরোনাম
দ্বিতীয়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হওয়ায় নায়ার কবিরকে বিভিন্ন মহলের ফুলেল শুভেচছা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রুবেলের গাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা ও ভাংচুর।। আহত-০২।। গ্রেপ্তার -০২ বীর মুক্তিযোদ্ধা হুমায়ুন কবির খান স্মৃতি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় মেয়াদ মেয়র নির্বাচিত হওয়ায় নায়ার কবিরকে বিজয়নগর যুবলীগসহ বিভিন্ন সংগঠন ও বিশিষ্টজনদের ফুলেল শুভেচ্ছা অব্যাহত এবার কাউন্সিলর হিসেবে ইন ও আউট হলেন যারা নাছিমার সাথে দ্বন্দ্বে ৮ মাস না পেরোতেই বান্দরবান বদলী বিজয়নগরের ইউএনও আরাফাত নাসিরনগরে অগ্নিকান্ডে দুটি ঘর পুড়ে ভষ্মীভূত।। সাংসদের দুঃখ প্রকাশ ও আর্থিক সহায়তা প্রদানের আশ্বাস অনিয়ম দূর্নীতি প্রতিরোধে বিপুল ভোটে বিজয়ী নায়ার।। পৌরবাসীর নিরব ভোট বিপ্লব দ্বিতীয় বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হলেন আ’লীগ মনোনীত নায়ার কবির বাঞ্ছারামপুরে মাকে খুন করলেন মাদকাসক্ত মেয়ে
বিজয়নগরে ব্রীজের নিচ থেকে বাঁধ ভেঙ্গে দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত

বিজয়নগরে ব্রীজের নিচ থেকে বাঁধ ভেঙ্গে দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত

স্টাফ রিপোর্টার//সময়নিউজবিডি 

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়ন ও পত্তন ইউনিয়নের মাঝখানে হলিয়াজুড়ি নদী (খালদ্ধবিল) উপর দিয়ে দুলালপুর কেশবপুর রাস্তার মাঝখানের ব্রীজের নিচে বাঁধ দিয়ে মাছ চাষের অভিযোগের প্রেক্ষিতে উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে অবশেষে বাঁধ সড়িয়ে নিলেন মৎস্য চাষীরা। 
মঙ্গলবার (৩০ জুন) বিকেলে হলিয়াজুড়ি খালদ্ধ বিলের উপর ব্রীজের নিচ থেকে এ বাঁধ সড়িয়ে নেন মৎস্য চাষীরা। 
জানা যায়, বিজয়নগর উপজেলার পত্তন ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামের মোঃ ইকবাল মিয়া ও একই ইউনিয়নের জাকির হোসেন লিলু মিয়ার পরিচালিত পত্তন ফিসারীজ, কাজলিয়া গ্রুপ ফিসারীজ ও আলিয়াজুরী ফিসারীজের নামে উপজেলার বিভিন্ন জলমহাল ইজারা নিয়ে থাকেন। এর মাধ্যমেই পত্তন ও বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের মাঝখানের হলিয়াজুড়ি হালদহ বিলের আগামী ৬ বছরের জন্য ইজারা নিয়ে বিলটির তুলনামূলক কম পানির কিছু অংশে বাঁধ নির্মাণ করে দেশী মাছের পাশাপাশি বিভিন্ন প্রজাতির মাছ চাষ করেন মৎস্য চাষীরা। এর ফলে মাছ চাষের এই প্রজেক্টে অর্ধশতাধিক কর্মহীন মানুষের কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু প্রজেক্টিতে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ চাষের সুরক্ষার জন্য খালের উপর নির্মাণাধীন ব্রীজের নিচে বাঁধ দেন মৎস্য চাষীরা।
এতে বিলের জলপ্রবাহে বিঘ্ন ও নৌকা চলাচলে প্রতিবন্ধকতার অভিযোগ করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। বিষয়টি উপজেলা মৎস্য অফিস ও উপজেলা প্রশাসনের নজরে আসলে বিষয়টি আমলে নিয়ে ইজারাদারদেরকে ব্রীজের নিচ থেকে বাঁধ সড়িয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেন। পরে গতকাল মঙ্গলবার বিকেল মৎস্য চাষীরা ব্রীজের নিচ থেকে বাঁধটি সড়িয়ে অন্যত্র বাঁশের তৈরি পাঠি দিয়ে বাঁধ নির্মাণ করেন। যেখানে নৌকা চলাচলেরও ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। 
এ ব্যাপারে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আবু সালেহ এ প্রতিবেদককে জানান, খালের বুকে আড়াআড়িভাবে মাছ চাষ করা বেআইনি। বিষয়টি আমাদের নজরে আসার পর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মাহবুবুর রহমান স্যারে নেতৃত্বে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ব্রীজের নিচ থেকে বাঁধটি ভেঙে দেওয়া হয়েছে। 
এ ব্যাপারে হলিয়াজুড়ি হালদহ বিলের ইজারাদার ও এ মৎস্য প্রজেক্টের মালিক মোঃ ইকবাল মিয়া ও জাকির হোসেন লিলু এ প্রতিবেদককে জানান, দীর্ঘদিন ধরে আমরা উপজেলার বিভিন্ন জলমহাল সরকারের কাছ থেকে ইজারা নিয়ে মাছ চাষ করি। এ বছরও আমরা হলিয়াজুড়ি হালদহ বিলটি আগামী ৬ বছরের জন্য সরকারের কাছ থেকে ইজারা নিয়েছি। আমরা বিলের একটি অংশে পানি কম হওয়ায় ব্রীজের নিচে বাঁধ দিয়ে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ চাষ করেছি। এতে মহামারি করোনা ভাইরাস সংক্রমণের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া ৪০ জনের কর্মসংস্থান করতে পেরেছি। কিন্তু এই অংশে দেশীয় প্রজাতির ছোট বড় মাছ প্রতিদিনেই স্থানীয় বাসিন্দারা জাল (ফেলুইন) দিয়ে ধরছে। এতে আমরা কাউকে নিষেধ করিনি। বিলের এই অংশে অনেক বছর ধরেই পানি কম হওয়ায় নৌচলাচল বন্ধ রয়েছে। এরপর গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ব্রীজের নিচ থেকে বাঁধটি ভেঙে দিয়েছেন।                                     

ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর।     

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com