সংবাদ শিরোনাম
বিরল প্রতিভার লেখক ইসমোনাককে সম্মান জানালেন জেলা প্রশাসক হায়াত উদ-দৌলা খাঁন ড্রিম ফর ডিসএ্যাবিলিটি ফাউন্ডেশনের আয়োজনে জিয়াউল কার্জন ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে প্রতিবন্ধীদের জন্য শীত বস্ত্র বিতরণ মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হালিম’র ইন্তেকাল।। রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় স্ত্রীর পাশে সমাহিত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভাতিজিকে ব্লেড দিয়ে পুচিয়ে রক্তাক্ত জখম করার দায়ে চাচা গ্রেপ্তার নাসিরনগরে করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিন নিয়ে অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত আখাউড়ায় শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা নবীনগরে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে চাচা-ভাতিজা নিহত মোকতাদির চৌধুরী এমপির জন্মদিন উপলক্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ১ হাজার শীতার্তের মধ্যে কম্বল বিতরণ নাসিরনগরে শিশুদের মাঝে ডায়রিয়ার প্রকোপ বিস্তার বিজয়নগরে আ’লীগ নেতা হৃদয় আহমেদ জালাল’র উদ্যোগে মোকতাদির চৌধুরী এমপির জন্মদিন পালিত
বিজয়নগরের হরষপুর-মির্জাপুর সড়কের বেহালদশা।। পদে পদে যাত্রীদের ভোগান্তি

বিজয়নগরের হরষপুর-মির্জাপুর সড়কের বেহালদশা।। পদে পদে যাত্রীদের ভোগান্তি

স্টাফ রিপোর্টার//সময়নিউজবিডি
প্রয়োজনীয় সংস্কারের অভাবে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলার হরষপুর-মির্জাপুর সড়কের বর্তমানে বেহাল দশা। বর্তমানে ঝঁুকি নিয়ে এই সড়কে চলাচল করছে বিভিন্ন ধরনের যানবাহন। এতে করে যাত্রীদেরকে পড়তে হচ্ছে ভোগান্তিতে।
খেঁাজ নিয়ে জানা গেছে, প্রয়োজনীয় সংকারের অভাবে উপজেলার গুরুত্বপূর্ন হরষপুর-মির্জাপুর সড়কটির এখন কঙ্কালসার অবস্থা। প্রায় ৫ কিলোমিটার লম্বা এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন বিজয়নগর ও হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর উপজেলার হাজার হাজার মানুষ বিভিন্ন পরিবহন দিয়ে যাতায়ত করে। কিন্তু সড়কটির ভগ্নদশার কারনে যাত্রীদের চরম দুভোর্গ পোহাতে হচ্ছে। 
বর্তমানে সড়কটির পাইকপাড়া, বাগদিয়া,  আমতলী, এলাকাসহ বিভিন্ন স্থানে বেশ কিছু গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। প্রতিদিনই এসব গর্তে পড়ে যানবাহনের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। যাত্রীরা পড়ছেন ভোগান্তিতে। গত ৩/৪দিন বৃষ্টি হয়ে রাস্তাটি কাদায় সয়লাব হয়ে গেছে। গর্তের মধ্যে পানি জমেছে। রাস্তায় চলাচলরত গাড়ির চাকাগুলো গর্তে গড়ে গাড়ি আটকে যাচ্ছে। পরে যানবাহন থেকে যাত্রী নামিয়ে গাড়ি পারাপার করতে হচ্ছে।
এ ব্যাপারে উপজেলার মির্জাপুর গ্রামের বাসিন্দা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক দীপক চৌধুরী বাপ্পী বলেন, রাস্তাটির অবস্থা অবর্ননিয়। রাস্তাটি বর্তমানে যান চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। তিনি দ্রুত রাস্তাটি সংস্কারের দাবি জানান।
এ ব্যাপারে মির্জাপুর গ্রামের অটোরিকসার চালক দুলাল মিয়া বলেন, রাস্তা খারাপ থাকায়, প্রতিদিনই ছোট-খাট দুর্ঘটনা ঘটে। যাত্রী নামিয়ে ধাক্কা দিয়ে গাড়ি পার করতে হয়।  এতে করে গাড়ির বিভিন্ন যান্ত্রিক সমস্যা দেখা দেয়। তিনি দ্রুত রাস্তাটি সংস্কার করে যাত্রীদের দুর্ভোগ লাঘব করার দাবি জানান।
এ ব্যাপারে হরষপুর গ্রামের কামরুল হাসান বলেন, এই রাস্তা দিয়ে চলাফেরা করা খুবই কষ্টকর। রাস্তার গর্তগুলো দিন দিন বড় হচ্ছে। বৃষ্টি হলেই পানি জমে। যান চলাচলে মারাত্মক সমস্যা হয়। তিনি দ্রুত রাস্তাটি সংস্কারের দাবি জানান। 

এ ব্যাপারে উপজেলার ইছাপুরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জিয়াউল হক বকুল বলেন, ৫ কিলোমিটার লম্বা এই সড়কের আধা কিলোমিটার ইছাপুরা ইউনিয়নের অন্তর্ভভুক্ত , বাকি সাড়ে চার কিলোমিটার হরষপুর ইউনিয়নের অন্তর্ভুক্ত। তিনি সড়কটির ভগ্নদশার কথা স্বীকার করে অবিলম্বে সড়কটির সংস্কার কাজ করার জন্য দাবি জানান।
এ ব্যাপারে উপজেলার হরষপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সারোয়ার রহমান ভূইয়া সড়কটির ভগ্নদশার কথা স্বীকার করে বলেন, সড়কটি সংস্কারের জন্য উপজেলা পরিষদের সমন্বয় সভায় বহুবার বলেছি কিন্তু কোন কাজ হয়নি। তিনি বলেন, কঙ্কালসার এই সড়কে প্রতিদিনই ছোট-খাট দুর্ঘটনা ঘটছে। তিনি  বলেন, ভারী যানবাহন চলাচলের কারনেই রাস্তাটি নষ্ট হয়ে গেছে। এতে করে জনগন খুবই কষ্ট করে যাতায়ত করতে বাধ্য হচ্ছে। তিনি দ্রুততম সময়ের মধ্যে সড়কটির সংস্কার কাজ করার দাবি জানান।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ আনিসুর রহমান ভূইয়া বলেন, সড়কটির সংস্কারের জন্য মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেয়া হয়েছে। এটি বর্তমানে অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে। তিনি বলেন, সড়কটির বড় বড় গর্তগুলো মেরামতের জন্য উদ্যোগ গ্রহন করা হবে।

ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর।

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com