সংবাদ শিরোনাম
একুশে ফেব্রুয়ারি শুধু একটি দিন নয়, এটি একটি আবেগ, একটি অনুভূতি: ওসি আসাদুল ইসলাম গোলাম মুস্তাফা আবৃত্তি পদক পেলেন কবি জয়দুল হোসেন আশুগঞ্জে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে এক ইটভাটাকে দেড় লাখ টাকা জরিমানা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের ব্যাপক কর্মসৃচি গ্রহণ সাহিত্য একাডেমির ৪১তম বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত পদ্মা সেতু নিয়ে প্রকাশিত সাময়িকী ‘তিতাস পাড়ের পদ্য পাতায় পদ্মা সেতু’ সংকলনের মোড়ক উন্মোচন করলেন মোকতাদির চৌধুরী এমপি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় লাইসেন্সবিহীন এক ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে সিলগালা বাংলাদেশের বাজারে রিয়েলমির সি৬৭ স্মার্টফোন, চলছে ফ্ল্যাশ সেল অফার ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পরিষদের উপ-নিবার্চনে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন হেলাল উদ্দিন নবীনগরে দীঘি থেকে বিচ্ছিন্ন দুই পা উদ্ধার

আবারও গিনেস রেকর্ড অর্জনের পথে পার্থ

আবারও গিনেস রেকর্ড অর্জনের পথে পার্থ

মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর প্রতিনিধি 

দ্বিতীয় বারের মত গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড অর্জনের পথে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার ফান্দাউক ইউনিয়নের ফান্দাউক গ্রামের প্রয়াত জগদীশ চন্দ্র দেবের ২য় ছেলে অধম্য যুবক পার্থ চন্দ্র দেব। ২০২০ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর সেপটিপিন দিয়ে দীর্ঘ চেইন তৈরী করে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড অর্জন করেন পার্থ। এরপর গত বছরের ৩০ মে ষ্ট্যাপলার পিন দিয়ে বিশ্বের দীর্ঘতম চেইন তৈরী করার জন্য অনুমতি চেয়ে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেন তিনি। 
সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, স্থানীয় শ্রী শ্রী পাগল শংকর জিও মন্দিরে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস কর্তৃপক্ষের দেওয়া শর্ত অনুযায়ী দু’জন সাক্ষী মোহাম্মদ আরিফুল ইসলাম বিল্পব ও পল্লব হালদার এবং সার্ভেয়ার তোফাজ্জল হোসেন মারজানের উপস্থিতিতে এই চেইন পরিমাপ করা হয়। এ সময় প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়ার সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। 
জানা গেছে, এর আগে ষ্ট্যাপলার পিন দিয়ে বিশ্বের দীর্ঘতম চেইনের রেকর্ডটি ছিল ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দুবরাজপুরের মিনহাজুল মন্ডলের। তিনি ২০১৯ সালের ৩০ ডিসেম্বর আশি হাজার ষ্ট্যাপনার পিন দিয়ে ৮২ দিন কাজ করে ছয়শ ৬১ দশমিক ৬৬ মিটার বা দুই হাজার ১৭০ ফুট ১০ ইঞ্চি লম্বা চেইন তৈরী করে বিশ্ব রেকর্ড অর্জন করেন। এ রেকর্ড ভেঙ্গে নতুন রেকর্ড করতে পার্থ গত বছরের ৩ মে গিনেস কর্তৃপক্ষের কাছে ই-মেইলের মাধ্যমে আবেদন করেন। ৭ জুলাই তার আবেদনটি গ্রহণ করে ২০ জুলাই কাজ করার জন্য দ্বিতীয় বার গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের জন্য তথ্য সংবলিত বোর্ডে পার্থ চন্দ্র দেবকে অনুমতি দেয় গিসেন কর্তৃপক্ষ। অনুমতি পাওয়ার পর গত ২০ জুলাই থেকে কাজ শুরু করে করে চলতি বছরের ১১ ফেব্রুয়ারী তা শেষ করে পার্থ চন্দ্র দেব। তার এই চেইনটি তৈরি করতে সময় লেগেছে ২০৭ দিন। প্রতিদিন চার ঘন্টা করে মোট ৮১৬ ঘন্টা ৩৫ মিনিট। তার চেইনটি পাঁচ হাজার ৭৫৩ ফুট বা এক হাজার ৭৫৪ দশমিক শূন্য ৯ মিটার লম্বা। তিনি এই চেইনটি তৈরি করতে আধা ইঞ্চি লম্বা এক লাখ ৭১ হাজার ৯০১টি ষ্ট্যাপলার পিন ব্যবহার করেন। যার ওজন সাত কেজি ২৯৬ গ্রাম। 
এদিকে দ্বিতীয়বার বিশ্ব রেকর্ড করতে যাওয়া পার্থ বলেন, প্রথম গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে স্থান পাওয়ার অনুভূতি বুঝাতে পারব না। এখন আবারও রেকর্ডের জন্য কাজ করছি। আমার প্রধান উদ্দেশ্য হলো দেশের সীমানা পেরিয়ে বিশ্ববাসীর কাছে বাংলাদেশের লাল-সবুজের পতাকাকে সম্মানিত করা। 
ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর। 

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com