সংবাদ শিরোনাম
বিজয়নগরে পত্তন ইউপি নির্বাচনে তাজু বনাম রতনের মধ্যে হবে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের কান্দিপাড়ায় আগুন।। লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি  পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ১৯ টি ইউনিয়নে আ’লীগের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচন- বিজয়নগরে ১৯ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়ন প্রত্যার কিশোরগঞ্জে র‍্যাবের অভিযানে ভারতীয় প্রসাধনীসহ তিন চোরাকারবারি আটক  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় র‍্যাবের অভিযানে বিপুল পরিমাণ ভারতীয় কাপড় ও কসমেটিকসহ এক চোরাচালানীকে আটক বিএনপি নেতার মৃত্যুতে হাসপাতালে ছুটে গেলেন আ’লীগ নেতাকর্মীরা ওমিক্রন বিষয়ে আপতত দেশে লকডাউনের পরিকল্পনা নেই; স্বাস্থ্যমন্ত্রী ভোটারদের ভোট চাইলেন পত্তন ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বার প্রার্থী আবুল ফায়েজ মাওলানা আব্দুল ওহাব কাউয়ার গলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এস এম সি কমিটির সভাপতি নির্বাচিত
বিজয়নগরে ইউএনও আরাফাত ও গণপূর্তের প্রকৌশলীদের মধ্যে হাতাহাতি

বিজয়নগরে ইউএনও আরাফাত ও গণপূর্তের প্রকৌশলীদের মধ্যে হাতাহাতি

স্টাফ রিপোর্টার//সময়নিউজবিডি 

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কে এম ইয়াসির আরাফাত ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া গণপূর্ত বিভাগের দুই প্রকৌশলীর সাথে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। 
গতকাল বৃহস্পতিবার (০৪ মার্চ) বেলা ২ টায় বিজয়নগর উপজেলা কমপ্লেক্স ভবনের দু’তলায় ইউএনওর কার্যালয়ে এ ঘটনাটি ঘটে। 
জানা যায়, গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া গণপূর্ত বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মিজানুর রহমান মজুমদার ও উপ- সহকারী প্রকৌশলী আহাম্মদ আল মামুন বিজয়নগরে গণপূর্ত বিভাগের টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টারের জায়গা বরাদ্দের বিষয়ে কথা বলতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। ইউএনও’র কক্ষে প্রবেশ করার সাথে সাথেই তাদের সাথে দূর্ব্যবহার শুরু করেন এবং রুম থেকে বেরিয়ে যেতে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। এসময় তারা নিজেদের ব্রাহ্মণবাড়িয়া গণপূর্ত বিভাগের প্রকৌশলী পরিচয় দিলেও ইউএনও আরাফাত তার অফিসের কর্মচারীদের ডেকে এনে তাদেরকে রুম থেকে বের করে দিতে এবং তাদের উপর হাত তোলারও নির্দেশ দেন। পরে ইউএনও’র অফিসের বারান্দায় প্রকৌশলীদের সাথে হাতাহাতির ঘটনাটি ঘটে। 
এ ব্যাপারে প্রত্যক্ষদর্শী ও নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সরকারি অফিসার জানান, ইউএনও স্যার গণপূর্তের প্রকৌশলীদের সাথে খারাপ আচরণ করেছেন। যা আমরা দেখেও কিছু বলতে পারিনি।
এ ব্যাপারে গণপূর্ত বিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী আহাম্মদ আল মামুন এ প্রতিবেদককে জানান, আমরা দাপ্তরিক কাজে ইউএনও’র রুমে প্রবেশ করার সাথে সাথেই উনি আমাদের সাথে দূর্ব্যবহার শুরু করেন। আর এটাই আমাদের অপরাধ। উনি আমাদের সাথে যে আচরণ করেছেন তা আমরা একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার কাছে আশা করিনি। 
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কে এম ইয়াসির আরাফাত এ প্রতিবেদককে জানান, হাতাহাতির কোন ঘটনা এখানে ঘটেনি। যা হয়েছিল সেটা হলো উনাদের মধ্যে কোন অফিসার সুলভ আচরণ পায়নি। পরে সেটা উনাদের ধরিয়ে দিলে উনারা দুঃখ প্রকাশ করে চলে গেছেন। এর বাইরে এখানে কিছুই হয়নি।
ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর। 

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com