সংবাদ শিরোনাম
সাইলোর মতো খাদ্যভান্ডার ছিলো বলে আমরা করোনা ও রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের মতো সমস্যা গুলো অতিক্রম করতে পেরেছি; খাদ্য মন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে শেরপুরে বাড়ছে নদ-নদীর পানি তিস্তাপাড়ের ২ হাজার পরিবার পানিবন্দি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পৃথক স্থানে বজ্রপাতে দু’জন নিহত আশুগঞ্জে মাদক সেবন নিয়ে বাক-বিতন্ডার জেরে যুবককে ছুরিকাঘাতে হত্যা পুলিশের উপর হিজড়াদের হামলা গ্রেফতার ৪ মাহিন্দ্র ট্রাক্টারের স্প্রিংয়ে গলা আটকে কৃষকের মৃত্যু বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক কাবাডি টুর্নামেন্টে টানা চতুর্থবার চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ মুজিব মুর‍্যালে শ্রদ্ধা নিবেদনের মাধ্যমে ইবি বঙ্গবন্ধু পরিষদের কার্যক্রম শুরু সরাইলে ভূমি ও গৃহের দাবীতে ভূমিহীনদের মানববন্ধন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় একযোগে পুলিশের ১৩ উপ-পরিদর্শককে বদলি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় একযোগে পুলিশের ১৩ উপ-পরিদর্শককে বদলি

স্টাফ রিপোর্টার//সময়নিউজবিডি
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশে কর্মরত ১৩জন উপ-পরিদর্শককে (এস.আই) একযোগে বদলি করা হয়েছে। বাংলাদেশ পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের উপ-মহাপরিদর্শকের (ডিআইজি) কার্যালয়ের এক আদেশে তাদেরকে বদলি করেন। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে বদলির আদেশটি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে পৌঁছে।
আদেশে ১০ জন এসআইকে জনস্বার্থে ও বাকি তিনজন এসআইকে প্রশাসনিক কারণে বদলি করা হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।
বদলির আদেশ হওয়া ১৩জন উপ-পরিদর্শকের (এসআই)  মধ্যে ছয়জনকে রাঙ্গামাটি, দুইজনকে বান্দরবন,  দুইজনকে খাগড়াছড়ি, একজনকে লক্ষীপুর, একজনকে চাঁদপুর ও একজনকে নোয়াখালী জেলায় বদলি করা হয়েছে। তাঁদের সবাইকে আগামী ২৯ মে এর মধ্যে বদলিকৃত কর্মস্থলে যোগদানের জন্য ছাড়পত্র নিতে বলা হয়েছে। অন্যথায় ৩০ মে থেকে তাঁরা স্ট্যান্ড রিলিজ বা তাৎক্ষণিক অবমুক্ত হিসেবে গণ্য হবেন বলে আদেশে উল্লেখ করা হয়।
এদিকে, এ নিয়ে হেফাজতের তান্ডবের ঘটনার পর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার সহকারি পুলিশ সুপার, সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, বিশ্বরোড খাঁটিহাতা হাইওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত), সদর মডেল থানার পরিদর্শক (অপারেশন), সদর মডেল থানার পরিদর্শকসহ (মিডিয়া) পুলিশের ২০জন অফিসারকে বদলি করা হয়েছে।
বদলির আদেশ হওয়া ১৩জন উপ-পরিদর্শকের মধ্যে বিউটি রানী দাস, বজলুর রহমান খাঁন, মোঃ হুমায়ূন কবির, মোঃ আমির হামজা ও এস. এম. আতিকুজ্জামান এবং মোঃ তোফাজ্জল হোসেনকে রাঙামাটি পার্বত্য জেলায়, তপু সাহা ও মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীনকে বান্দরবন পার্বত্য জেলায়, মোঃ মতিউর রহমান ও মোঃ শাহ সাব খাঁনকে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলায় বদলি করা হয়েছে। এছাড়াও এসআই মোঃ শফিকুল ইসলামকে লক্ষ্মীপুর, মোঃ মিজানুর রহমানকে চাঁদপুর এবং মোঃ নূরুল আমিনকে নোয়াখালী জেলায় বদলি করা হয়েছে।
এদের মধ্যে শফিকুল ইসলাম, মিজানুর রহমান ও নূরুল আমিনের বদলির ধরন প্রশাসনিক কারণ বলে উল্লেখ করা হয়েছে। আর বাকিদের বদলি জনস্বার্থে।
এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) রইছ উদ্দিন বলেন, নিয়মিত বদলির অংশ হিসেবেই তাদেরকে বদলি করা হয়েছে। অনেকেরই জেলায় দুই বছর পূর্ণ হয়েছে। তবে তাঁদের মধ্যে ১০জন এসআইকে জনস্বার্থে বদলি করা হয়েছে। তিনজনকে প্রশাসনিক কারণে বদলি করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরকে কেন্দ্র করে গত ২৬ থেকে ২৮ মার্চ পর্যন্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ব্যাপক সহিংসতা চালায় হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা। হামলাকারীরা ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশন, পৌরসভা কার্যালয়, সুর সম্রাট দি আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গন, এসিল্যান্ডের কার্যালয়, সুর সম্রাট আলাউদ্দিন খাঁ পৌর মিলনায়তন, জেলা ক্রীড়া সংস্থার কার্যালয়, পুলিশ সুপারের কার্যালয়, সিভিল সার্জনের কার্যালয়, জেলা মৎস্য অফিস, সার্কিট হাউজ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাব, মাতৃ সদন, সরকারি গণগ্রন্থাগার, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল-মামুন সরকারের বাসভবন, জেলা শিল্পকলা একাডেমী, বঙ্গবন্ধু স্কয়ারে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর দুটি ম্যুরালসহ তিনটি ম্যুরাল, শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত ভাষা চত্বরে উন্নয়ন মেলার প্যান্ডেল, একই চত্বরে থাকা শহর সমাজসেবা প্রকল্পের অফিস, মুক্তিযোদ্ধা সংহতি পরিষদের অফিস, পৌর মেয়রের বাসভবন, সার্কিট হাউজ, হাইওয়ে থানা ভবন, ইউনিভার্সিটি অব ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ক্যাম্পাস, হিন্দু সম্প্রদায়ের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান দক্ষিণ কালীবাড়ি, বিজয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির ব্যক্তিগত চেম্বার, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতির বাসভবন, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের বাসভবন, আশুগঞ্জ টোলপ্লাজা, সুহিলপুর ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়সহ সরকারি, বেসরকারি প্রায় অর্ধশতাধিক স্থাপনায় হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও অগ্নি সংযোগ করে পুরো ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে মৃত্যুপুরিতে পরিনত করে।
এসব ঘটনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিভিন্ন থানায় এ পর্যন্ত ৫৬টি মামলা হয়েছে। এসব মামলায় এখন পর্যন্ত ৪৯৬জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর।

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com