সংবাদ শিরোনাম
সাইলোর মতো খাদ্যভান্ডার ছিলো বলে আমরা করোনা ও রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের মতো সমস্যা গুলো অতিক্রম করতে পেরেছি; খাদ্য মন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে শেরপুরে বাড়ছে নদ-নদীর পানি তিস্তাপাড়ের ২ হাজার পরিবার পানিবন্দি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পৃথক স্থানে বজ্রপাতে দু’জন নিহত আশুগঞ্জে মাদক সেবন নিয়ে বাক-বিতন্ডার জেরে যুবককে ছুরিকাঘাতে হত্যা পুলিশের উপর হিজড়াদের হামলা গ্রেফতার ৪ মাহিন্দ্র ট্রাক্টারের স্প্রিংয়ে গলা আটকে কৃষকের মৃত্যু বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক কাবাডি টুর্নামেন্টে টানা চতুর্থবার চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ মুজিব মুর‍্যালে শ্রদ্ধা নিবেদনের মাধ্যমে ইবি বঙ্গবন্ধু পরিষদের কার্যক্রম শুরু সরাইলে ভূমি ও গৃহের দাবীতে ভূমিহীনদের মানববন্ধন

নাসিরনগরে আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা রাস্তা নির্মাণের অভিযোগ 

নাসিরনগরে আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা রাস্তা নির্মাণের অভিযোগ 

স্টাফ রিপোর্টার//সময়নিউজবিডি
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলা সদরে আদালতের অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা ও কারণ দর্শানোর নোটিশকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ব্যক্তি মালিকানা জায়গা দখল করে রাস্তা নির্মাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটেছে।
জানা যায়, নাসিরনগর মৌজার সিএস  ৮১৩, এসএ ৯০৭ নং, বিএস ৮৯৮ হাল দাগ ৬২৫৩ দাগের ৩ শতাংশ জায়গার উপর উপজেলার ফুল গ্রামের মৃত আমরু মিয়া চৌধুরীর ছেলে কবির চৌধুরী বাদী হয়ে নাসিরনগর সদরের মৃত আব্দুল হান্নান চৌধুরীর ছেলে মোজাম্মেল হক চৌধুরী, মোখলেছুর রহমান চৌধুরী, গোপাল বিশ্বাসের ছেলে পল্টু বিশ্বাস, নান্টু বিশ্বাস, মৃত অমর দেবের ছেলে দুলাল দেব, আবুল হোসেন চৌধুরীর ছেলে আহম্মদ হোসেন চৌধুরীকে বিবাদী করে নাসিরনগর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিনিয়র বিজ্ঞ জজ আদালতে দেওয়ানী ৩৬৩ নং মোকদ্দমা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে গত ২১ জুন ২০২১ তারিখে বিবাদীগণকে নোটিশ প্রাপ্তির ১০ দিনের মধ্যে আদালতে কারণ দর্শাতে ও উক্ত জায়গার যেখানে যে অবস্থায় আছে সে অবস্থায় রাখতে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার নোটিশ জারি করে। বিবাদীরা আদালতের কারণ দর্শানোর ও অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার নোটিশ প্রাপ্তির পরেও গত ২২ জুন ২০২১ তারিখে থানা ও আদালতকে অবমাননা করে আইনের প্রতি কোনরূপ তোয়াক্কা না করে  ব্যক্তি মালিকানা জায়গার উপর রাস্তা নির্মাণ করে ফেলে। এ বিষয়ে বাদী বাঁধা দিলে বিবাদীরা প্রাণনাশের হুমকি প্রদান করে। বর্তমানে বিবাদীদের ভয়ে বাদী ও তার পরিবারের লোকজন চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছে বলে জানান কবির চৌধুরী।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিবাদী মোজাম্মেল হক চৌধুরী ও দুলাল দেব জানায়, ইহা কারো মালিকানা জায়গা নয়। দীর্ঘদিন যাবৎ জনগণের চলাচলের রাস্তা। তাই জনগণের চলাচলের স্বার্থে পুন:সংস্কার করা হচ্ছে।
এ বিষয়ের অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই জুলুস খান পাঠানের সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিষয়টি জানতে আমি হাসপাতালে গিয়ে কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায় রাস্তার জায়গাটি হাসপাতালের কিন্তু জনগণের চলাচলের সুবিধার্থে সেটি রাস্তার জন্য দেওয়া হয়েছে।
ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর।

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com