সংবাদ শিরোনাম
আপনাদের ঘামের দাম আমি রক্ত দিয়ে হলেও পরিশোধ করবো; সিঙ্গারবিলের জনসভায় জাবেদ পত্তন ইউনিয়নের সম্মান রক্ষায় জাবেদকে ভোট দেবে বলে মাশাউড়াবাসীর ঐক্যবদ্ধ অঙ্গীকার এবার রবীন্দ্রনাথের ‘হৈমন্তী’ হয়ে আসছেন ঐশিকা ঐশি দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর ফের ব্রাহ্মণবাড়িয়া তিতাস গ্যাস ফিল্ডের ১৪ নম্বর কূপ থেকে গ্যাস উত্তোলন শুরু উপজেলা পরিষদ নির্বাচন: আখাউড়ায় মনির ও কসবায় ছাইদুর রহমান বিজয়ী বিজয়নগরে বজ্রপাতে এক যুবকের মৃত্যু সরাইলে অসহায় দুঃস্থদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ আখাউড়ায় চেয়ারম্যান প্রার্থী মুরাদের সভা থেকে বিরিয়ানি জব্দ বিজয়নগরে বিপুল পরিমাণ গাঁজা উদ্ধার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হোন্ডা-সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষ।। নিহত-১।। আহত-৫

কমলগঞ্জে মামলা তুলে নিতে বাদিকে হুমকি

কমলগঞ্জে মামলা তুলে নিতে বাদিকে হুমকি

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের পূর্ব আধকানি গ্রামে স্ত্রীর সহযোগীতায় শশুর বাড়ির লোকজন জমি ক্রয়ের ৫ লাখ টাকা জোরপূর্বক ছিনিয়ে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ করা হয়েছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শাহীন মিয়া আদালতে মামলা করলে মামলার আসামীরা মামলা তুলে নিতে তাকে অব্যাহত হুমকি দিয়ে আসছেন। পরে শাহীন মিয়া গত ৩০ সেপ্টেম্বর রাতে নিজের নিরাপত্তা চেয়ে কমলগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়রি (জিডি) করেছেন।
অভিযোগে জানা যায়, কমলগঞ্জ উপজেলা আদমপুর ইউনিয়নের উত্তরভাগ গ্রামের জমির মিয়ার ছেলে ছালিম মিয়ার ১৫ শতক জমি কিনতে চান একই ইউনিয়নের পূর্ব আধকানি গ্রামের মৃত রইছ মিয়ার ছেলে শাহীন মিয়া। তিনি ওই জমি ১৮ লাখ দাম সাব্যস্থ করে ৫ লাখ টাকা বায়না দিতে জমির মালিক ছালিমকে গত ২৭ সেপ্টেম্বর দুপুরে তার বাড়িতে ডাকেন। এরআগে পাওনা টাকা ও ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করে নগদ ৫ লাখ টাকা বাড়িতে নিজ হেফাজতে রাখেন শাহীন। জমির বায়না দেওয়ার খবর পেয়ে বাপের বাড়িতে থাকা তার স্ত্রী সেলিনা বেগম তার বাবা,মা ও ভাইকে নিয়ে স্বামীর বাড়িতে ফিরে এসে জমি ক্রয়ে আপত্তি জানান। শাহীন তার স্ত্রী ও শশুর-শাশুড়ি এবং শালার কথা না শুনে জমির বায়না টাকা দিতে চাইলে জমির মালিকের সামনেই তার শালা,শশুর-শাশুড়ি ও স্ত্রী মিলে বসত ঘরের ওয়ারড্রবে রক্ষিত ৫ লাখ টাকা জোরপূর্বক ছিনিয়ে নিয়ে চলে যান। শাহীন মিয়ার বসত ঘরের পাশেই তার শশুর বাড়ি। বিকালে তিনি ওই টাকাগুলো আনতে শশুর বাড়ি গেলে টাকা নেওয়ার কথা অস্বীকার করে তার স্ত্রীকে তালাক দিতে তার শশুরসহ শশুর বাড়ির লোকজন তাকে চাপ দেন। তাতে তিনি রাজি না হলে তার বিরুদ্ধে মামলার হুমকি দন তারা। পরে এসব ঘটনার পরদিন ২৮ সেপ্টেম্বর মৌলভীবাজারের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৩নং আমল আদালতে তিনি তার শালা শামিম মিয়াকে প্রধান আসামি করে ৪ জনের বিরুদ্ধে কোর্ট পিটিশন মামলা করেন। আদালতে মামলা করার খবরে ক্ষুব্দ হন মামলার প্রধান আসামি সহ তার শশুর বাড়ির লোকজন। মামলার আসামিরা মামলা তুলে নিতে মামলার বাদি শাহীনকে অব্যাহত হুমকি দিচ্ছেন। অব্যাহত হুমকিতে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন মামলার বাদি। ফলে নিজের নিরাপত্তা চেয়ে গত ৩০ সেপ্টেম্বর রাতে কমলগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়রি করেন শাহীন মিয়া। এ বিষয়ে কথা বলতে রোববার দুপুরে অভিযুক্ত শামিম মিয়ার মুঠোফোনে একাধিকবার কল দিলে তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।
ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর।

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com