সংবাদ শিরোনাম
বিজয়নগরে বজ্রপাতে এক যুবকের মৃত্যু সরাইলে অসহায় দুঃস্থদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ আখাউড়ায় চেয়ারম্যান প্রার্থী মুরাদের সভা থেকে বিরিয়ানি জব্দ বিজয়নগরে বিপুল পরিমাণ গাঁজা উদ্ধার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হোন্ডা-সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষ।। নিহত-১।। আহত-৫ শিক্ষার্থীদের উদ্ভাবনী প্রতিভার বিকাশ ঘটাতে হবে; ডিসি হাবিবুর রহমান ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় উপকূল এক্সপ্রেসের হোসপাইপ ছিঁড়ে এক ঘন্টা ট্রেন চলাচল বন্ধ এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ- অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সেরা বিজয়নগরে প্রতীক বরাদ্দের আগেই প্রচারনা চালানোর অভিযোগ চেয়ারম্যান প্রার্থী জাবেদের বিরুদ্ধে।। কারন দর্শানোর নোটিশ আদমপুরবাসী গতবার যেভাবে ভোট ও সহযোগিতা করেছেন আশা করি এবারও ভোট দিয়ে বিজয়ী করবেন ;লুৎফর রহমান মুকাই আলী

বাঞ্ছারামপুরে ইউপি সদস্য হত্যা মামলার দুই আসামীর আদালতে স্বীকারোক্তি

বাঞ্ছারামপুরে ইউপি সদস্য হত্যা মামলার দুই আসামীর আদালতে স্বীকারোক্তি

স্টাফ রিপোর্টার//সময়নিউজবিডি
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে পূর্ব বিরোধের জের ধরে অলি মিয়া নামের এক সাবেক ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনা দুর্ধর্ষ অপরাধী ইকবাল হোসেন-(৫৪) ও তার প্রধান সহকারী নৈমুদ্দিন-(৩৮) নামে দুই আসামি আদালতে হত্যার দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন। ইকবাল হোসেন উপজেলার সলিমাবাদ ইউনিয়নের তাতুয়াকান্দি গ্রামের মৃত মিজানুর রহমানের ছেলে এবং একই এলাকার মৃত আলী আহম্মদের ছেলে নৈমুদ্দিন।
বুধবার (০১ ফেব্রুয়ারী) বিকেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আরফিন আহমেদ হ্যাপির আদালতে গ্রেফতারকৃত দুই আসামি হত্যার দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারা জবানবন্দি দিয়েছেন৷
এ ব্যাপারে বাঞ্ছারামপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নূরে আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, রোববার (২৯ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় উপজেলার সলিমাবাদ ইউনিয়নের তাতুয়াকান্দি গ্রামের ৬নং ওয়ার্ডে সাবেক ইউপি সদস্য অলি মিয়াকে ইকবাল হোসেনের নেতৃত্বে নির্মমভাবে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। হত্যার পর ইকবালসহ তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়। এই ঘটনায় পুলিশ হত্যাকারীদের গ্রেফতারে অভিযান শুরু করে। গত ৩১ জানুয়ারি মধ্যরাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ডিবি ও পুলিশের একটি টিম সিলেটের কোম্পানিগঞ্জে অভিযান চালিয়ে ইকবাল হোসেন ও নৈমুদ্দিনকে গ্রেফতার করে। এরপর দিন বুধবার (০১ ফেব্রুয়ারী) বিকেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আরফিন আহমেদ হ্যাপির আদালতে গ্রেফতারকৃত দুই আসামি হত্যার দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারা জবানবন্দি দিয়েছেন৷
ইকবালের দেওয়া জবানবন্দির বরাত দিয়ে ওসি নূরে আলম বলেন, অলি মেম্বারের সাথে ইকবাল ও তার গ্রুপের লোকদের কয়েক বছর ধরে স্থানীয় আধিপত্য নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। গত ২৯ জানুয়ারি ইকবাল গ্রুপের নৈমুদ্দিনকে অলির বাড়ীর সামনে পেয়ে অলি মেম্বার ধাওয়া দেয়। তখন নৈমুদ্দিন ফোন দিয়ে সবুজ, ইকবাল, সজল, মিস্টার সহ ১০/১২ জনকে আসতে বলে। ইকবাল, সবুজ, নৈমুদ্দিনসহ উল্লিখিত সকল টেটা, রাম দা নিয়ে এসে অলি মেম্বারকে ঘিরে ফেলে এবং টেটা বিদ্ধ করে কুপিয়ে হত্যা করে।‌‌ তিনি বলেন, ইকবাল একজন দুর্ধর্ষ অপরাধী। তার বিরুদ্ধে হত্যা, ডাকাতি সহ অন্তত ১০টি মামলা চলমান রয়েছে।
ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর।

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com