সংবাদ শিরোনাম
কমলগঞ্জে ৪ মাসেও মাঠকর্মীরা ভাতার টাকা পায়নি।। ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ সোয়া দুই বছর পর চাতলাপুর অভিবাসন কেন্দ্র দিয়ে ভারত-বাংলাদেশ যাত্রী পারাপার শুরু কবি নজরুল সাহিত্য পদক পেলেন কথাসাহিত্যিক আমির হোসেন মহান মুক্তিযুদ্ধের পর পদ্মা সেতুর সফলতা জাতির জন্য এক গৌরবোজ্জ্বল অধ্যায়; আল মামুন সরকার ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার উদ্যোগে মশা নিধন কার্যক্রমের উদ্বোধন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার আয়োজনে বর্ণাঢ্য র‍্যালী কমলগঞ্জে ট্র্যাকিং ডিভাইস সহ লজ্জাবতী বানর অবমুক্ত করন কর্মসূচি কমলগঞ্জে প্রধানমন্ত্রীর ১০টি উদ্ভাবনী উদ্যোগ নিয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালা চিকিৎসা শেষে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ফিরলেন আল-মামুন সরকার কমলগঞ্জে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে ত্রাণ সমাগ্রী বিতরণ
ডেকে এনে হত্যার ঘটনায় স্বামী-স্ত্রীর ফাঁসির রায় ঘোষনা ; একজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

ডেকে এনে হত্যার ঘটনায় স্বামী-স্ত্রীর ফাঁসির রায় ঘোষনা ; একজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

স্টাফ রিপোর্টার//সময়নিউজবিডি   

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শুক্কুর আলী (৩৫) নামে এক ব্যক্তিকে ডেকে এনে হত্যার দায়ে স্বামী – স্ত্রীর মৃত্যুদন্ড দিয়েছেন বিজ্ঞ আদালত। বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক সাবেরা সুলতানা খানম এ রায় ঘোষনা করেন।        

মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্তরা হলেন- আফজাল কৈয়া ও তার স্ত্রী হেলেনা বেগম। এ ঘটনায় আমির উদ্দিন নামে আরেক আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন বিজ্ঞ আদালত। অপরদিকে মামলার আরো দুই আসামি ওমর ফারুক ও মোঃ সুমনকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে। রায় ঘোষনার সময় আফজাল কৈয়া ও আমির উদ্দিন আদালতে উপস্থিত ছিলেন। বাকী অন্য আসামীরা পলাতক রয়েছে।  

জানা গেছে, ঢাকার নারায়নগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার হালদা গ্রামের বাসিন্দা শুক্কুর আলী একই গ্রামের বাসিন্দা আফজাল মিয়ার কাছ থেকে জায়গা কিনেন। কিন্তু জায়গা বাবদ সমোদয় টাকা পরিশোধ করার পরও রেজিস্ট্রি করে দিতে তালবাহানা শুরু করেন আফজাল। পরে গত ২০১২ সালের ৭ ডিসেম্বর শুক্কুর আলীকে কৌশলে আফজালের শ্বশুরবাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলায় নিয়ে আসেন হেলেনা। পরে শুক্কুর আলীকে স্থানীয় মরিচাকান্দি এলাকার মেঘনা নদীর কাছে নিয়ে গিয়ে প্রথমে পুরুষাঙ্গ কেটে দেন হেলেনা। এসময় আফজাল এসে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে শুক্কুরের মরদেহ নদীতে ফেলে দেন। ঘটনার পরদিন নদী থেকে শুক্কুরের মরদেহ উদ্ধার করেন পুলিশ। এ ঘটনায় মরিচাকান্দি এলাকার চৌকিদার শাহ আলম বাদী হয়ে বাঞ্ছারামপুর মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এদিকে মামলা দায়েরের পর দীর্ঘ তদন্ত শেষে গত ২০১৩ ইং সনের ৫ মে পাঁচজনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশীট জমা দেন পুলিশ। পরে আদালত দীর্ঘসময় পর্যালোচনা করে আজ ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ইং রোজ বুধবার মামলার রায় ঘোষনা করেন।        
এ ব্যাপারে বাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট শরীফ হোসেন মামলার রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।                                                                         
ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর।    

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com