সংবাদ শিরোনাম
কমলগঞ্জে ৪ মাসেও মাঠকর্মীরা ভাতার টাকা পায়নি।। ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ সোয়া দুই বছর পর চাতলাপুর অভিবাসন কেন্দ্র দিয়ে ভারত-বাংলাদেশ যাত্রী পারাপার শুরু কবি নজরুল সাহিত্য পদক পেলেন কথাসাহিত্যিক আমির হোসেন মহান মুক্তিযুদ্ধের পর পদ্মা সেতুর সফলতা জাতির জন্য এক গৌরবোজ্জ্বল অধ্যায়; আল মামুন সরকার ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার উদ্যোগে মশা নিধন কার্যক্রমের উদ্বোধন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার আয়োজনে বর্ণাঢ্য র‍্যালী কমলগঞ্জে ট্র্যাকিং ডিভাইস সহ লজ্জাবতী বানর অবমুক্ত করন কর্মসূচি কমলগঞ্জে প্রধানমন্ত্রীর ১০টি উদ্ভাবনী উদ্যোগ নিয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালা চিকিৎসা শেষে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ফিরলেন আল-মামুন সরকার কমলগঞ্জে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে ত্রাণ সমাগ্রী বিতরণ
কক্সবাজারে ইউনিভার্সিটির ছাত্রকে ছুরিকাঘাত; প্রতিবাদে মানববন্ধন

কক্সবাজারে ইউনিভার্সিটির ছাত্রকে ছুরিকাঘাত; প্রতিবাদে মানববন্ধন

কক্সবাজার সংবাদদাতা//সময়নিউজবিডি 

কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগের ছাত্র মো. শেফায়েত আলম তুহিনকে ছুরিকাঘাত করার প্রতিবাদে প্রতিবাদ সমাবেশ, মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন করেছে সহপাঠিরা। 
মঙ্গলবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত বিভিন্ন দফায় সহপাঠির বিচার চেয়ে মাঠে নামেন। সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ইউনিভার্সিটির সামনে অপর ছাত্র মোয়াজ্জেম মোর্শেদ জিনান ছুরিকাঘাত করে তুহিনকে। এতে তুহিন আহত হয়। জিনান রামু উপজেলার রশিদ নগরের মঞ্জুর মোর্শেদের ছেলে। তুহিন শহরের রুমালিয়ারছড়া এলাকার শফিউল আলমের ছেলে। এই ঘটনায় সদর থানায় এজাহার দায়ের করেন আহত ছাত্র। মঙ্গলবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে তুহিন বলেন, জিনান প্রায় সময় ইউনিভার্সিটিতে বিশৃঙ্খলা তৈরি করে। কারো কথা শুনতে চাই না। এই নিয়ে বিভিন্ন সময় তাকে বিশৃঙ্খলা না করতে বলা হয় আইন বিভাগের পক্ষ থেকে। কিন্তু এতে তিনি প্রায় সময় ক্ষিপ্ত হন। যার কারণে গত সোমবার দুপুরে ব্যাগ থেকে ছুরি বের করে আমাকে ছুরিকাঘাত করে। তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন, একছাত্র কিভাবে ব্যাগে ছুরি রাখে? ছুরি নিয়ে কিভাবে ইউনিভার্সিটিতে আসে? এখনো তার বিরুদ্ধে কোনো ধরণের ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। যার প্রতিবাদে বেলা ১২ টার দিকে ইউনিভার্সিটির সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ করা হয়েছে। এরপর বেলা ৩ টার দিকে কক্সবাজার পৌরসভার সমানে মানববন্ধনও করা হয়। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন, আইন বিভাগের জুনায়েদ তানভির (৯ম ব্যাচ), আশেক মোস্তফা রিয়াজ (৮ম ব্যাচ), কায়দে আজম (৮ম ব্যাচ), আফিস মোহাম্মদ বাপ্পি, এহসানুল কবির মুকুট, কায়সারুল হাসান রুবেল, নাছির মাহমুদ, সাকিবুর রহমান, মেহেদী হাসান রাজ, শাহ মো. নওশাদ শুভ ও ইব্রাহিম আজাদ। তারা দ্রুত সময়ে মোয়াজ্জেম মোর্শেদ জিনানের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা চান। একই সাথে ইউনিভার্সিটির পক্ষ থেকে শাস্তির দাবীর জানান।
ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর।    

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com