সংবাদ শিরোনাম
পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার আয়োজনে বর্ণাঢ্য র‍্যালী কমলগঞ্জে ট্র্যাকিং ডিভাইস সহ লজ্জাবতী বানর অবমুক্ত করন কর্মসূচি কমলগঞ্জে প্রধানমন্ত্রীর ১০টি উদ্ভাবনী উদ্যোগ নিয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালা চিকিৎসা শেষে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ফিরলেন আল-মামুন সরকার কমলগঞ্জে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে ত্রাণ সমাগ্রী বিতরণ আমরাই সরাইলের আ’লীগ, আমরা ছিলাম, আমরাই আছি ; প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে বক্তারা বিজয়নগরে বন্যার পরিস্থিতি অবনতি।। প্রশাসনের সতর্ক অবস্থান ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার সার্বিক উন্নয়ন ও সমস্যা সমাধানে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন; পৌর মেয়র নায়ার কবির বিজয়নগর উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি’র জরুরী সভা অনুষ্ঠিত সরাইলে পশুর হাটে হাঁটু পানি।। বিপাকে ক্রেতা-বিক্রেতা।। লোকসানে ইজারাদার
হতদরিদ্রের ওএমএস তালিকায় পাঁচতলা ভবনের মালিক

হতদরিদ্রের ওএমএস তালিকায় পাঁচতলা ভবনের মালিক

বিশেষ প্রতিবেদক//সময়নিউজবিডি 

আওয়ামীলীগ সভানেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও স্থানীয় সাংসদ উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীর কঠোর হুঁশিয়ারির পরও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হতদরিদ্রের ওএমএস তালিকায় পাঁচতলা ভবনের মালিক সহ তার পরিবার ও আত্মীয়স্বজনের নাম রয়েছে।    
করোনায় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ খাদ্য সহায়তা বরাদ্দের বিশেষ ওএসএম কার্ডের  তালিকায় জেলা শহরের শীর্ষস্থানীয় ধনাঢ্য ব্যক্তি-জেলা আওয়ামী লীগ নেতা আলহাজ্ব শাহ আলমের পরিবার-  স্বজনদের নামে ঠাসা। স্ত্রী- সন্তান, একাধিক ভাই-বোন, একাধিক ভাতিজা, একাধিক শ্যালক, শ্যালকদের স্ত্রী, বোনের একাধিক দেবরসহ নিকটাত্মীয়দের নামও বাদ যায়নি বিশেষ ওএমএস’র তালিকা থেকে।
জানা যায়, করোনা পরিস্থিতিতে বিশেষ ওএমএস চালু হয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভায়। প্রথম ৯ হাজার ৬’শ জনকে দেয়া হচ্ছে এই সুবিধার কার্ড।আর এতে নিজের নাম সহ আত্মীয় স্বজনের নাম তালিকাভুক্ত করেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার ১০নং ওয়ার্ডের কাউতুলীতে পাঁচতলা ভবনের মালিক, জেলা আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য সম্পাদক, জেলা রেস্তোরা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক, ব্রাহ্মণবাড়িয়া চেম্বার অব কমার্স এণ্ড ইণ্ডাস্ট্রি’র পরিচালক, ১০ নং ওয়ার্ডের ওএমএস ডিলার, এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেডক্রিসেন্ট ইউনিটের সেক্রেটারি  আলহাজ্ব মো. শাহ আলম।
বিশেষ ওএমএস’র তালিকার ১৬ নম্বরে স্ত্রী মোসাম্মৎ মমতাজ আলম, ১২ নম্বরে মেয়ে আফরোজা, ৮, ৯ ও ২৭ নম্বরে তিন ভাই-বোন মো. সেলিম, মো. আলমগীর ও শামসুন্নাহার, ৭ নম্বরে আরেক ভাই খোরশেদ মিয়ার প্রবাসী পুত্র নাসির,৩ নম্বরে শ্যালক মো.তাজুল ইসলাম, ৫ নম্বরে শ্যালকের স্ত্রী আসমা ইসলাম,১০ নম্বরে অপর শ্যালকের স্ত্রী মোসাম্মৎ জান্নাতুল ইসলাম, ১৩ নম্বরে আরেক প্রবাসী শ্যালক শফিকুল ইসলাম, ৭২, ৭৩ ও ৭৪ নম্বরে বোনের তিন দেবর মতিউর রহমান, মাহবুবুর রহমান, লুৎফুর রহমানের নাম রয়েছে।
জেলা আওয়ামী লীগ নেতা মো. শাহ আলমের কাছে তালিকায় পরিবারের সদস্যদের নাম থাকার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের জানান, ‘এ বিষয়টা কাউন্সিলর বলতে পারবে। আমার ভাই মহল্লার সর্দার। তিনি আমাকে বলেছে মহল্লার মধ্যে হতদরিদ্র এবং নিম্ন মধ্যবিত্ত যারা আছে তাদের তালিকা করার জন্য। এই তালিকা কাউন্সিলরের কাছে পাঠানো হয়েছে। সে এবং পৌরসভা যাচাই-বাছাই করে ফাইনাল করবে। তাছাড়া আমি কোনও কার্ড বণ্টন করিনি। আমি হলাম ডিলার। ডিলার কোন কার্ড দিতে পারেনা।’
জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খান সাংবাদিকদের জানান, ‘১০ জন স্বাক্ষর দিয়ে একটি তালিকা জমা দিলে খাদ্য অফিসার সেটি গ্রহণ করেন । তার আগে পৌরমেয়র তা অনুমোদন করেন। কোন ত্রুটি থাকলে মেয়র জবাব দেবেন। আমাদের পক্ষে ঘরে ঘরে গিয়ে যাচাই করা অসম্ভব। কোন অভিযোগ পেলে অবশ্যই আমরা ব্যবস্থা নেব।
ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর।                                         

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com