সংবাদ শিরোনাম
এবার কাউন্সিলর হিসেবে ইন ও আউট হলেন যারা নাছিমার সাথে দ্বন্দ্বে ৮ মাস না পেরোতেই বান্দরবান বদলী বিজয়নগরের ইউএনও আরাফাত নাসিরনগরে অগ্নিকান্ডে দুটি ঘর পুড়ে ভষ্মীভূত।। সাংসদের দুঃখ প্রকাশ ও আর্থিক সহায়তা প্রদানের আশ্বাস অনিয়ম দূর্নীতি প্রতিরোধে বিপুল ভোটে বিজয়ী নায়ার।। পৌরবাসীর নিরব ভোট বিপ্লব দ্বিতীয় বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হলেন আ’লীগ মনোনীত নায়ার কবির বাঞ্ছারামপুরে মাকে খুন করলেন মাদকাসক্ত মেয়ে উৎসবমুখর পরিবেশে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সেফটিক টাঙ্কি বিস্ফোরণে দেয়াল ভেঙ্গে আহত- ৫।। এলাকায় আতঙ্কের সৃষ্টি।। ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি দিনশেষে রাত পোহালেই ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভোট উৎসব।। শান্তি প্রতিষ্ঠাই হচ্ছে ভোটারদের লক্ষ্য ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসব প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত
সরাইলে বিদ্যালয়ের মাঠ জলাবদ্ধতা সৃষ্টি করে মাছ চাষ !

সরাইলে বিদ্যালয়ের মাঠ জলাবদ্ধতা সৃষ্টি করে মাছ চাষ !

সরাইল প্রতিনিধি, সময়নিউজবিডি    

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার শাহজাদাপুর পশ্চিম সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ জলাবদ্ধতার কারণে চরম দূর্ভোগ ও ভোগান্তির শিকার হচ্ছে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী শিক্ষক ও অভিভাবকবৃন্দ। জলাবদ্ধতার কারণে শিক্ষার্থীদের খেলাধূলা, সৃজনশীল কর্মকান্ড এবং জাতীয় সঙ্গীতের সমাবেশ বিঘ্নিত হচ্ছে দীর্ঘদিন ধরে।

সরজমিন ঘুরে জানা যায়, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতিকে নিয়ে বিদ্যালয় মাঠে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি করে মাছ চাষের উপযোগী করে ইজারা দেয়। এতে শিক্ষার্থীদের খেলাধুলা, সৃজনশীল কর্মকান্ড এবং জাতীয় সঙ্গীতের সমাবেশ সহ সার্বিক পরিবেশ বিঘ্নিত হচ্ছে। 
জানা যায়, বিদ্যালয়টিতে ৪ জন শিক্ষক ও ১৮৭ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। বিদ্যালয়ের পশ্চিম পাশে একটি দ্বিতল ভবন রয়েছে। দ্বিতীয় তলায় ক্লাশ রুম হিসেবে ব্যবহত হয়। নিচ তলায় মা ও অভিভাবক সমাবেশ নিয়মিত হতো। জলাবদ্ধতার কারণে এখন তা বন্ধ রয়েছে। বিদ্যালয়ের মাঠটি বিদ্যালয় ও রাস্তা থেকে ৩/৪ ফুট নিচু হওয়ায় বৃষ্টি হলেই আশপাশের পানিতে মাঠে সৃষ্টি হয় জলবদ্ধতার।এতে দূর্ভোগ পোহাতে হয় শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের। এ সুযোগে  বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মিলে পানি নিস্কাশনের ড্রেইনের রাস্তা  বন্ধ করে পানি আটকিয়ে মাছ চাষের উপযোগী করে ইজারা দেয়।বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বই হাতে নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করে মাচ চাষ বন্ধ করার দাবী জানিয়ে তারা বলেন,বৃষ্টি হলে মাঠের পানি ড্রেইন দিয়ে পাশ্ববর্তী খালে ১/২ ঘটায় পানি নেমে যেত, কিন্তু এখন  ড্রেইন বন্ধ করে দেওয়ায় পানি আার খালে নামতে পারে না। এ কারনে আমরা খেলাধূলা ও এসম্বলি করতে পারি না। জাতীয় সঙ্গীতের কথা জানতে চাইলে শিক্ষার্থীরা বলেন, স্যার জাতীয় সঙ্গীত গাওয়ায় না। 
নাম প্রকাশ করতে অনিইচ্ছুক এক অভিভাবক  জানান, এ মাঠে আমাদের ছেলে মেয়েরা খেলাধুলাসহ নানা সমাজিক অনুষ্ঠান করে থাকে। সবচেয়ে গুরুক্তপূর্ন বিষয় হলো এ এলাকার কোন লেক মারা গেলে এই মাঠে জানাযা হতো তাও বন্ধ হয়ে গেছে। অতিদ্রুত পানি নিস্কাশন করা প্রয়োজন। 
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইয়াসমিন বেগম জানান, মাঠে আজিজ নামে এক লোক পানি আটকিয়ে মাছ চাষ করছে। 
আপনি ও সভাপতির অনুমতি ছাড়া আজিজ মিয়া কিভাবে মাছ চাষ করে- এ প্রশ্নের জবাবে প্রধান শিক্ষিকা চুপ থাকেন।

এ বিষয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি দুলারুর রহমান জানান, আজিজসহ নিজেদের আত্মীয় স্বজনরা মাঠে মাছ চাষ করেছে।


ইনাম/সময়নিউজবিডি টোয়েন্টিফোর।      

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com