সংবাদ শিরোনাম
আইনমন্ত্রীর পিএকে ঘুষ দিতে গিয়ে আটক ব্যক্তির শশুর বাড়ির আতিথেয়তা নিলেন কসবা উপজেলা চেয়ারম্যান নাসিরনগর উপজেলা জাতীয়তাবাদী প্রবাসী ফোরামের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ বিজয়নগর ইটভাটার সংস্কার কাজ করতে গিয়ে শ্রমিক নিহত ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর নির্বাচনে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেন মেয়র নায়ার কবির ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ১০৯১ জনের মধ্যে সরকারি ঘরের দলিল হস্তান্তর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রতিবন্ধীদের মধ্যে হুইল চেয়ার বিতরণ ব্রাহ্মণবাড়িয়া “বাতিঘর”‘র পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত প্রতিপক্ষের হামলায় আশুগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যানের ভাই নিহত।। আহত- ১২ বিজয়নগরে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড এর উদ্যোগে অতিদ্রুত সময়ের মধ্যে পর্যটন কেন্দ্র স্থাপনের নির্মাণ কাজ শুরু হবে; জাবেদ আহমেদ নাসিরনগরে হিলিপ প্রকল্পের ১৭ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ইউপি সদস্য গ্রেপ্তার
রিকশার লাইসেন্স ফি কমানো ও চলাচলের অধিকার দাবিতে কমিউনিস্ট পার্টির সমাবেশ স্মারকলিপি প্রদান

রিকশার লাইসেন্স ফি কমানো ও চলাচলের অধিকার দাবিতে কমিউনিস্ট পার্টির সমাবেশ স্মারকলিপি প্রদান

স্টাফ রিপোর্টার//সময়নিউজবিডি
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় লাইসেন্স না পাওয়া প্রায় তিন হাজার রিকশা চালকের পাশে দঁাড়িয়েছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)। সোমবার সংগঠনটির জেলা কমিটির পক্ষ থেকে চালকদের পক্ষে তিনটি দাবি জানিয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দেয়া হয়। এর আগে বিভিন্ন এলাকায় লিফলেট বিতরণ ও কাউতলীতে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ  অনুষ্ঠিত হয়।
সিপিবি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলার সভাপতি শাহরিয়ার মোঃ ফিরোজ ও সাধারন সম্পাদক মো. সাজিদুল ইসলাম স্বাক্ষরিত স্মারকলিপিতে বলা হয়, পৌর এলাকা ও পৌর এলাকার পার্শ্ববতর্ী এলাকার রিকশা ও চালকদের লাইসেন্স এবং পৌর এলাকায় রিকশা চলাচলের অধিকার দিতে হবে। ব্যাটারিচালিত রিকশার ফি ৫০০ টাকা, পায়ে চালিত রিকশার ফি ৫০ টাকা, ও রিকশা চালকের লাইসেন্স ফি ২০০ টাকা করতে হবে। পৌরসভা নির্ধারিত যাত্রী ভাড়া বাস্তবায়ন করতে হবে। 
জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খঁানের হাতে স্মারকলিপি দেয়ার সময় সিপিবি সাধারন সম্পাদক সাজিদুল ইসলাম, সহ-সাধারন সম্পাদক আছমা খানম, সৈয়দ মোঃ জামাল, অসীত পাল, আহমেদ হোসেন, মোঃ আল-মামুন, শোভা পাল, নূরুল আলম, সাহেদ মিয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এ সময় সিপিবি’র পক্ষে রিকশা নিয়ে সার্বিক পরিস্থিতি তুলে ধরা হয়। 
এ ব্যাপারে সিপিবির জেলা সাধারণ সম্পাদক সাজিদুল ইসলাম বলেন, ‘পৌর এলাকায় পঁাচ হাজার রিকশা চলাচল করলেও মাত্র দুই হাজার রিকশাকে লাইসেন্স দেয়ায় বাকিরা বেকার হয়ে পড়েছে। লাইসেন্স দিতে গিয়েও নানা ধরণের অনিয়ম করা হয়েছে।’
এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘রিকশার কারণে নয়, বেহাল সড়ক, ফুটপাত দখলসহ বিভিন্ন কারণে সড়কে যানজট দেখা দেয়। যানজটের অজুহাতে কম সংখ্যক লাইসেন্স দেয়ায় রিকশা না পেয়ে এখন যাত্রীরা বিপাকে পড়েন ও বেশি ভাড়া দিয়ে চলতে বাধ্য হন।’ 

ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর।

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com