সংবাদ শিরোনাম
ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর নির্বাচনে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেন মেয়র নায়ার কবির ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ১০৯১ জনের মধ্যে সরকারি ঘরের দলিল হস্তান্তর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রতিবন্ধীদের মধ্যে হুইল চেয়ার বিতরণ ব্রাহ্মণবাড়িয়া “বাতিঘর”‘র পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত প্রতিপক্ষের হামলায় আশুগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যানের ভাই নিহত।। আহত- ১২ বিজয়নগরে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড এর উদ্যোগে অতিদ্রুত সময়ের মধ্যে পর্যটন কেন্দ্র স্থাপনের নির্মাণ কাজ শুরু হবে; জাবেদ আহমেদ নাসিরনগরে হিলিপ প্রকল্পের ১৭ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ইউপি সদস্য গ্রেপ্তার নাসিরনগরে গ্রেপ্তারী পরোয়ানার আসামী পালিয়ে বিদেশ যাওয়ার চেষ্ঠা ব্যর্থ বিরল প্রতিভার লেখক ইসমোনাককে সম্মান জানালেন জেলা প্রশাসক হায়াত উদ-দৌলা খাঁন ড্রিম ফর ডিসএ্যাবিলিটি ফাউন্ডেশনের আয়োজনে জিয়াউল কার্জন ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে প্রতিবন্ধীদের জন্য শীত বস্ত্র বিতরণ
অটোরিকসা চালক রনি হত্যার রহস্য উদঘাটন।। দুই যুবক গ্রেপ্তার

অটোরিকসা চালক রনি হত্যার রহস্য উদঘাটন।। দুই যুবক গ্রেপ্তার

স্টাফ রিপোর্টার//সময়নিউজবিডি 
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অটোরিকসা চালক রনি মিয়া-(১৪) হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। হত্যাকান্ডে জড়িত দুই আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- সদর উপজেলার মজলিশপুর ইউনিয়নের মজলিশপুর গ্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে মোঃ জাকির হোসেন-(২৭) এবং সরাইল উপজেলার ইসলামাবাদ (গোগদ) গ্রামের শাহজাহান মিয়ার ছেলে মোঃ সোহেল মিয়া-(২৫)।

গত সোমবার বিকেলে গ্রেপ্তারকৃতরা আদালতে রনি মিয়াকে হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী প্রদান করে। এর আগে গত রোববার রাতে সদর উপজেলার নন্দনপুর এলাকা থেকে পুলিশ জাকির হোসেন ও সোহেল মিয়াকে গ্রেপ্তার করে।
পুলিশ জানায়, গত ১২ ডিসেম্বর বিকেল ৩টায় জাকির হোসেন ও সোহেল মিয়া তাদের সহযোগীদের নিয়ে মজলিশপুর গ্রামের দুলাল মিয়ার ছেলে রনি মিয়ার অটোরিকসা ভাড়া করে পৌর এলাকার ছয়বাড়িয়া গ্রামের নির্মানাধীন একটি আবাসন প্রকল্পের ( ডিসি প্রজেক্ট) এর সামনে আসে।
পরে তারা রনি মিয়ার অটোরিকসাটি ছিনিয়ে নেয়ার উদ্দেশ্যে তার হাত পা বেধে তাকে ছুরিকাঘাত করে ও মাফলার দিয়ে পেচিয়ে শ্বাসরোধ করে রনি মিয়াকে হত্যা করে তার লাশ প্রজেক্টের ভেতরে বালি চাপা দেয়। পরে তারা অটোরিকসা ও রনি মিয়ার মোবাইল ফোন নিয়ে পালিয়ে যায়।
এদিকে রনি মিয়ার কোন খোঁজ না পেয়ে তার বাবা দুলাল মিয়া ১৩ ডিসেম্বর সদর মডেল থানায় একটি জিডি (সাধারণ ডায়েরী) করেন।
গত ১৭ ডিসেম্বর ডিসি প্রজেক্টের ভেতরে বালি চাপা দেয়া অবস্থায় মানুষের পা  দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ সেখান থেকে অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে। পরে খবর পেয়ে নিহতের বাবা দুলাল মিয়া এসে লাশ তার ছেলে রনি মিয়ার বলে সনাক্ত করেন। এ ঘটনায় দুলাল মিয়া অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্ধে সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করলে পুলিশ তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে গত ২০ ডিসেম্বর রাতে সদর উপজেলার নন্দনপুর এলাকা থেকে হত্যাকান্ডে জড়িত দুই আসামীকে গ্রেপ্তার করে।
এ ব্যাপারে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আবদুর রহিম দুই আসামীকে গ্রেপ্তারের কথা স্বীকার করে বলেন, গ্রেপ্তারকৃতরা সোমবার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী প্রদান করেছে। অন্যান্য আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর। 

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com