সংবাদ শিরোনাম
শারদীয় দূর্গোৎসব উপলক্ষ্যে ৪৯টি পূজামন্ডপে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার আর্থিক অনুদান বিতরণ যুবলীগ নেতা মহসিনের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার বিজয়নগরে বিশ্ব তথ্য অধিকার দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত সরাইলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬ তম জন্মদিন পালিত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় র‍্যাবের অভিযানে গাঁজাসহ দুই মাদক কারবারি আটক ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন পালন করলো ছাত্রলীগ জাতীয় মহিলা সংস্থার উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর ৭৬তম জন্মবার্ষিকী পালিত কমলগঞ্জে যুবলীগের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন বিজয়নগরে শিক্ষার্থীর রহস্যজনক আত্মহত্যার ঘটনায় আদালতে মামলা।। দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চান সহপাঠীরা কমলগঞ্জে পুবালী ব্যাংক’র এটিএম বুথের উদ্বোধন

দৃশ্যমান পদ্মা সেতু, ২০২০ সালের ডিসেম্বরে যান চলাচল করবে

দৃশ্যমান পদ্মা সেতু, ২০২০ সালের ডিসেম্বরে যান চলাচল করবে

Advertisements

সময়নিউজবিডি ডেস্ক রিপোর্ট  
পদ্মা সেতু এখন দৃশ্যমান হতে চলেছে। এ পর্যন্ত সেতুর সার্বিক অগ্রগতি হয়েছে ৬৭ শতাংশ। দৃশ্যমান হয়েছে ২ কিলোমিটার। সবমিলিয়ে ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে পদ্মা সেতুর ওপর দিয়ে যানবাহন চলাচল করতে পারবে বলে আশা প্রকাশ করছেন সংশ্লিস্ট প্রকৌশলীরা।

প্রকল্প পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম আশা প্রকাশ করে বলেন, ‘ইতিমধ্যে প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি ৬৭ শতাংশ। এর মধ্যে দুই পাড়ের সংযোগ সড়ক ও সার্ভিস এরিয়া শতভাগ শেষ হয়েছে। তবে জাজিরা অংশে সংযোগ সড়কের কিছুটা কাজ বাকি আছে। সেই হিসেবে ৯৯ শতাংশ ধরা হয়’।

এছাড়া মূলসেতু ৮১ শতাংশ ও নদী শাসন ৫৯ শতাংশসহ প্রকল্পের অগ্রগতি ভালো’। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ হবে প্রকল্পের কাজ শেষ হবে বলে জানান।

তিনি আরও জানান, ‘সার্ভিস এরিয়া মাওয়া ও জাজিরা প্রান্তের সংযোগ সড়কের কাজ শতভাগ শেষ হয়েছে। ২৯ জুন সেতুর মাওয়া প্রান্তে ১৫ ও ১৬ নম্বর পিয়ারে (খুঁটি) বসানো হয়েছে ১৫০ মিটার দৈর্ঘের ১৪তম স্প্যান (ইস্পাতের কাঠামো)।

এর আগে মাওয়ায় ৩টি, জাজিরা প্রান্তে ৯টি ও মাঝ নদীতে একটি স্প্যান বসানো হয়েছে। মোট ১৪টি স্প্যান বসানোর মাধ্যমে সেতুর ২ হাজার ১০০ মিটার বা দুই কিলোমিটারের বেশি অংশ দৃশ্যমান হলো। কংক্রিট ও স্টিলের কাঠামো দিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতু।

সেতু বিভাগ সূত্র জানায়, ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর খুঁটিতে প্রথম স্প্যানটি বসানোর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হয় পদ্মা সেতু। এর পর্যন্ত মূল সেতুতে মোট ১৪টি স্প্যান বসানো মাধ্যমে ২১০০ মিটার অংশ দৃশ্যমান হয়েছে।

এছাড়া নতুন নকশায় সেতুর ১৪ পিয়ারের পাইলিং কাজ চলছে। এ পর্যন্ত সেতুর ২৯৪টি পাইলের মধ্যে ২৮৮টি পাইল স্থাপন হয়ে গেছে। বাকি ছয়টি পাইল বসানোর কাজ এ মাসেই সম্পন্ন হবে। নদীতে সেতুর ৪১ পিয়ারের মধ্যে ২৯টি পিয়ার নির্মাণ হয়ে গেছে। বাকি ১২টি পিয়ার নির্মাণ এ বছরই হয়ে যাবে।

মাওয়ার কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে আরও ১০টি স্প্যান প্রস্তুত হয়ে আছে। ৯টি স্প্যানের অংশ চীনে তৈরি হয়ে গেছে। দুটি স্প্যানের অংশ আগামী মাসের মধ্যে চলে আসবে। মাওয়ার কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে আসার পর প্রতি মাসে একটি করে স্প্যান জোড়া দেয়া হয়। মূল সেতুতে মোট ২৯৪টি পাইল রাখা হয়েছে। এরই মধ্যে ২৮৮টি পাইল বসানোর কাজ শেষ হয়েছে।

জানা গেছে, ২৯৪টি পাইলের উপর ৪২টি পিয়ার নির্মাণ করা হবে। এর মধ্যে ৪১ টি স্প্যান বসানো হবে পিয়ারের উপর। একটি থেকে আরেকটি পিয়ারের দূরত্ব ১৫০ মিটার। এর মাঝে বসানো ১৫০ মিটার দীর্ঘ প্রতি স্প্যান। এর স্প্যানের ভিতর দিয়ে চলবে ট্রেন ও উপর দিয়ে চলবে গাড়ি।

এ বিষয়ে সেতু বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. হুমায়ুন কবির বলেন, ‘পদ্মার মূল সেতুর অগ্রগতি ৮১ শতাংশ। এ পর্যন্ত ১৪টি স্প্যান বসানো হয়েছে। আগামী মাসে আরও একটি স্প্যান বসানো হবে। একই সঙ্গে রোড ও রেলওয়ে স্ল্যাব বসানোর কাজ চলছে। এ পর্যন্ত সেতুর ২৯টি পিয়ার নির্মাণ শেষ হয়েছে। বাকি পিয়ার এ বছরের মধ্যে শেষ হবে।
সূূূূত্রঃ আজকের পত্রিকা। 

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com