সংবাদ শিরোনাম
পাটগ্রামে রাসেলস ভাইপার সাপ সন্দেহে মেরে ফেলা হলো দুইটি সাপকে সাইলোর মতো খাদ্যভান্ডার ছিলো বলে আমরা করোনা ও রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের মতো সমস্যা গুলো অতিক্রম করতে পেরেছি; খাদ্য মন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে শেরপুরে বাড়ছে নদ-নদীর পানি তিস্তাপাড়ের ২ হাজার পরিবার পানিবন্দি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পৃথক স্থানে বজ্রপাতে দু’জন নিহত আশুগঞ্জে মাদক সেবন নিয়ে বাক-বিতন্ডার জেরে যুবককে ছুরিকাঘাতে হত্যা পুলিশের উপর হিজড়াদের হামলা গ্রেফতার ৪ মাহিন্দ্র ট্রাক্টারের স্প্রিংয়ে গলা আটকে কৃষকের মৃত্যু বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক কাবাডি টুর্নামেন্টে টানা চতুর্থবার চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ মুজিব মুর‍্যালে শ্রদ্ধা নিবেদনের মাধ্যমে ইবি বঙ্গবন্ধু পরিষদের কার্যক্রম শুরু

সরাইলে মামলা তুলে নিতে বাদীকে হত্যার হুমকি।। থানায় জিডি

সরাইলে মামলা তুলে নিতে বাদীকে হত্যার হুমকি।। থানায় জিডি

সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের বাড়িউড়া গ্রামের আব্দুল্লাহপুর এলাকার কবির মিয়ার হত্যা মামলা তুলে নিতে বাদীকে হত্যার হুমকি দিয়েছেন হত্যা মামলার আসামী ও স্বজনরা।
এ ঘটনায় সরাইল থানায় একটি সাধারণ ডায়রী (জিডি) করেছেন বাদী সাব্বির মিয়া। মামলার এজাহার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের বাড়িউড়া গ্রামের আব্দুল্লাহপুর এলাকার সাব্বির মিয়ার পুত্র কবির মিয়াকে (১৭) গত ১৫ মে ২০২০খ্রি. রাত সাড়ে ৯ টায় একই এলাকার সফর আলীর পুত্র সাইফুল ইসলাম (২১) সহ সঙ্গীয় অন্যান্য আসামীরা লাউয়ার খালের পাড় ডেকে নিয়ে হত্যা করে লাশ কুচুরিপানার নীচে লুকিয়ে রাখে। নিহত কবির মিয়ার পিতা সাব্বির মিয়া বাদী হয়ে সাইফুল ইসলামসহ ৪ জনকে আসামী করে সরাইল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এসময় এলাকার সফর আলীর পুত্র সাইফুল ইসলামকে(২১) পুলিশ গ্রেফতার করেন। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে আসামী সাইফুল ইসলাম হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেয়। সেই সাথে হত্যাকান্ডের সাথে একই এলাকার ইকবাল মিয়া, লিটন মিয়া ও তৌহিদুল ইসলাম প্রকাশ আখিল মিয়া নামে অপর ৩ জন আসামী জড়িত থাকার কথাও স্বীকার করেন।
পরবর্তীতে পুলিশ আসামী ইকবাল মিয়াকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন। অপর দুইজন আসামী লিটন মিয়া ও তৌহিদুল ইসলাম প্রকাশ আখিল মিয়া পলাতক রয়েছে।
হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত উল্লেখিত ৪ জন আসামীর বিরুদ্ধে গত ১৩ জুন ২০২১ খ্রি. বিজ্ঞ আদালতে অভিযোগ পত্র নং ৩০ দাখিল করেন সরাইল থানা পুলিশ। বর্তমানে মামলাটি বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।
আসামী সাইফুল ইসলাম বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জামিনে  মুক্ত হয়ে বাড়িতে এসেছেন। গ্রেফতারকৃত আসামী ইকবাল মিয়া বর্তমানে জেল হাজতে রয়েছেন। আসামী সাইফুল ইসলাম জামিনে মুক্ত হয়ে  বাড়িতে এসে মামলার বাদী সাব্বির মিয়াকে মামলা তুলে নিতে নানাভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শণ ও চাপ সৃষ্টি করে আসছেন।
সর্বশেষ এলাকার রাস্তায় গত ৬ আগস্ট ২০২১খ্রি. সকাল ১১টায় মামলার বাদী সাব্বির মিয়াকে ৬ আগস্ট ২০২১সকাল ১১টায় বাড়িউড়া বাজারে একা পেয়ে মামলা তুলে নিতে ভয় ভীতি প্রদর্শণ করার পাশাপাশি মামলা তুলে না নিলে নিহত কবির মিয়ার মত বাদী সাব্বির মিয়া ও তার আত্বীয়-স্বজনকে একইভাবে খুন করার হুমকি প্রদান করেন আসামী সাইফুল ইসলাম, ও তার নিকটাত্বীয় হুমায়ূন মিয়া (৫৫) ও শাওন মিয়া (২৮) প্রকাশ শাকিল।
এ ব্যাপারে হত্যা মামলার বাদী সাব্বির মিয়া বলেন, আমার ছেলের হত্যাকারী আসামি সাইফুল ইসলাম জেল থেকে জামিনে বের হয়েই আমাকে হুমকি দিয়েছে। আমি যদি মামলা না তুলে নেই তাহলে আমাকে খুন করে ফেলবে। আমার বংশের সবাইকে মেরে নির্বংশ করে দিবে। অপর আসামি আখিল এর চাচা হুমায়ুন মিয়া, ভাই শাকিল আমাকে একই ভাবে হুমকি দিয়ে আসছে। ৩ জনের নাম উল্লেখ করে  সরাইল থানায় একটি জিডি করেছি
এ ব্যাপারে সরাইল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আসলাম হোসেন বলেন, কবির হত্যার মামলাটি বর্তমানে বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। হুমকির বিষয়টি তেমন কিছু না তাদের মধ্যে সামান্য কিছু ঝামেলা হয়েছে। আমি দুই পক্ষকে শান্ত করার চেষ্টা করছি, যাতে করে এলাকাতে নতুন করে কোন ঝামেলা সৃষ্টি না হয়। এ ব্যাপারে একটি সাধারণ ডায়েরি হয়েছে। পলাতক আসামীকে গ্রেফতার করার চেষ্টা করছি।
ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর।

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com