সংবাদ শিরোনাম
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতি তান্ডব পুলিশের এপিসিতে অগ্নিসংযোগের মূলহোতা জাকারিয়া গ্রেপ্তার কমলগঞ্জে ব্যবসায়ীর ধান নিয়ে ট্রাকসহ চালক উধাও কমলগঞ্জে ইফতার সামগ্রী বিতরণ  নাসিরনগরে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক খাদ্য সহায়তা বিতরণ করলেন ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম এমপি  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তিনটি পৃথক অভিযানে বিপুল পরিমাণ মাদকসহ পাঁচ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার বিজয়নগরে অর্থ সহায়তা আনতে গিয়ে আঙ্গুল হারানো রিনার দায়িত্ব নিলেন উপজেলা প্রশাসন   সরাইলে হত্যাসহ অর্ধডজন মামলার আসামী গ্রেপ্তার ফেনী থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তান্ডবের ঘটনায়  নেতা গাজী ইয়াকুব গ্রেপ্তার আশুগঞ্জে র‍্যাবের অভিযানে মোবাইল ফোনের টাওয়ারের যন্ত্রপাতিসহ গ্রেপ্তার- ১।। প্রাইভেটকার জব্দ   ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় র‍্যাবের অভিযানে মোটরসাইকেল চোর সিন্ডিকেটের এক সদস্য গ্রেপ্তার।। ৩ টি মোটরসাইকেল উদ্ধার 
নাসিরনগর মাদক ও দেহ ব্যবসায়ীদের সহায়তাকারী আলা উদ্দিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দাখিল

নাসিরনগর মাদক ও দেহ ব্যবসায়ীদের সহায়তাকারী আলা উদ্দিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দাখিল

স্টাফ রিপোর্টার//সময়নিউজবিডি 
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর থানার দালাল নামে পরিচিত, মাদক ওদেহ ব্যবসায়ীদের প্রশ্রয় দাতা থানা পুলিশের নাম ভাঙ্গীয়ে বিভিন্ন লোকজনের কাছ থেকে প্রতারনা পূর্বক মোটা অংকের টাকা আদায়কারী প্রতারক আলাউদ্দিনের বিরুদ্ধে প্রথমে থানায় ও পরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছে সাহানারা বেগম নামে এক নারী। সে উপজেলার কুন্ডা ইউনিয়নের তুল্লাপাড়া গ্রামের ছোয়াব মিয়ার স্ত্রী। 
গত ১৩ অক্টোবর ২০২০ ইং তারিখে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সাহানারা বেগম অভিযোগটি দাখিল করে। 
এদিকে গত ২০১৭ সালের ২৫ অক্টোবর গোকর্ণ ইউনিয়নের নূরপুর গ্রামের প্রায় শতাদিক লোক মিলে প্রতারক ও দালাল আলাউদ্দিনের বিরুদ্ধে পুলিশ সুপার বরাবর আরো একটি অভিযোগ দাখিল করেছিল। যাহার সিরিয়াল নং ২৯১৩/২য়। 
সাহানারা বেগমের অভিযোগে জানা গেছে তার ছেলে সাইফুল ইসলাম কলেজ মোড়ে মোবাইল সার্ভিসিং এর কাজ করে। আলা উদ্দিন একজন দালাল,প্রতারক, চরিত্রহীন এবং ক্রিমিনাল প্রকৃতির লোক। আলা উদ্দিন প্রায় সময়ই বিভিন্ন লোক জনের নিকট থেকে প্রতারনা করে টাকা পয়সা আদায় করে থাকে। ৩ অক্টোবর সাহানারার সম্পর্কে নাতিন নূরপুর গ্রামের নাছরিন বেগম তার পায়ের রড খুলতে নাসিরনগর মেঘনা মেডিকেল সেন্টারে গেলে ডাঃ নজরুল ইসলাম নাছরিনের পায়ের রগ কেটে পেলে। নাসরিন ঘটনাস্থলেই মারা যায়। পরে নজরুল ইসলামের বিরুদ্ধে নাসিরনগর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়। এ ঘটনার পর রাত অনুমান সাড়ে ১১ ঘটিকার সময় আলা উদ্দিন সাহানারার মোবাইল নাম্বারে ফোন দিয়ে ১ লক্ষ টাকা দাবী করে। টাকা না দিলে তার ছেলে সাইফুলকে উক্ত মামলায় আসামী করা হবে এবং পুলিশ সাইফুলকে ধরে নিয়ে যাবে বলে হুমকি দেয়। পরদিন সন্ধ্যা অনুমান ৭ ঘটিকার সময় প্রতারক আলা উদ্দিন থানার এ এস আই ইমাম হাসানকে সাইফুলের মোবাইল দোকানে পাঠিয়ে সাইফুলকে গ্রেফতারের হুমকি দেয়। ২০১৭ সালের নূরপুর গ্রামবাসির অভিযোগে দেখা গেছে আলা উদ্দিন নূরপুর গ্রামের ভিতর একটি মিনি পতিতালয় খুলে সেখানে বিভিন্ন বয়সী মেয়েদের দিয়ে দেহ ব্যবসা ও মাদক ব্যবসা করাত। তাছাড়াও এলাকা চোর ডাকাত মাদক ও দেহ ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে থানা পুলিশের নাম ভাঙ্গীয়ে তাদের অজান্তে মোটা অংকের টাকা পয়সা আদায় করত। অবশেষে নিরুপায় হয়ে আলা উদ্দিনের ভয়ে সাহানারা তার ছেলে সাইফুল ও পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তার জন্য জেলা পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ দাখিল করে। 
ইনাম/সময়নিউজবিডি টুয়েন্টিফোর। 

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com