সংবাদ শিরোনাম
অসুস্থ মোহাম্মদ হানিফের শয্যাপাশে পৌর মেয়র নায়ার কবির জনপ্রতিনিধি ও সরকারি কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে দেশের উন্নয়নের গতি আরও ত্বরান্বিত করতে হবে ; এমদাদ উল্লাহ মিয়ান পৌরসভার মেয়র পদে নির্বাচন; ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তিন পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম কিনলেন ৩৮ জন ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার মেয়র পদে আ’লীগের মনোনয়ন ফরম কিনছেন সৈয়দ মিজানুর রেজা।। সকলের দোয়া ও সহযোগীতা কামনা বিজয়নগরে একটি মুরগীবাহী পিকআপ আটককে মুরগী লুটপাট।। নগদ লক্ষাধিক টাকা ছিনতাই।। আহত- ৩ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আ’লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু।। দলীয় মনোনয়ন ফরম কিনলেন বর্তমান মেয়র মিসেস নায়ার কবির বিজয়নগরে গৃহহীনদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার “গৃহনির্মাণ ” কাজ পরিদর্শন করলেন নাছিমা মুকাই আলী শ্রীমঙ্গলের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোহন দেবনাথের পরলোক গমন ঢাকা-চট্রগ্রাম রেলপথের ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অজ্ঞাত এক ব্যক্তির গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় “করোনাকালীন সংকট মোকাবেলায় প্রাথমিক শিক্ষা কার্যক্রম বাস্তবায়ন, চ্যালেঞ্জ ও করণীয়” শীর্ষক ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত
সততার পুরস্কার মিষ্টি হয়!!

সততার পুরস্কার মিষ্টি হয়!!

এক দেশে ছিল এক রাজা। তার বংশের কোন প্রদীপ ছিল না। এমন কেউ ছিল না যে তার মৃত্যুর পরে রাজ্যটা দেখবে। তাই সে খুব চিন্তিত হয়ে গেল।

হঠাৎ করে তার মাথায় একটা বুদ্ধি এলো। সে তার রাজ্যের সমস্ত বাচ্চাদেরকে ডাকলেন এবং বললেন যে, তোমাদের মধ্যে একজন হবে এই রাজ্যের রাজা। তখন সবাই খুশিতে আত্নহারা। পাশাপাশি রাজামহাশয় আরো বললেন যে, তোমাদের সবাইকে একটি করে বীজ দেওয়া হবে এবং তোমাদের মধ্যে ১ বছরে যে সবচেয়ে ভাল গাছ ফলন পাবে সে হবে এই রাজ্যের রাজা। তখন সবাই তাদের বাড়ি গিয়ে ওই রাজার দেওয়া বীজটি মাটিতে পুতে ফেললো।তারা সকলেই বীজটির যত্ন করতে লাগলো।অনেকেরই বীজ থেকে চারা বড় হতে লাগলো।কিন্তু তাদের মধ্যে সাগর নামের এক ছেলে ছিল (এখানে সাগর একটি ছদ্ম নাম) সেও রাজার দেওয়া বীজটি খুব যত্ন করতে লাগলো ।১ মাস পর সবার চারাই বড় হতে লাগলো। কিন্তু একমাত্র সাগরের চারাই বড় হচ্ছিল না।
২ মাস পর সবার চারাই আরেকটু বড় হল কিন্তু সাগরের বীজ থেকে চারা উঠলোই না।তখন সাগর একটু চিন্তিত হয়েছিল।এইভাবে মাসের পর মাস যেতে যেতে এক বছরে চারা বড় হতে থাকে। ১২ মাস এর মাথায় সবাই একত্রিত হল রাজাকে তাদের চারা দেখাবে বলে। সবার চারা গুলোই খুব সুন্দর ছিল। কিন্তু সাগরের জায়গাতে ছিল শুধু একটু মাটি এবং পানি কারন তার বীজ থেকে চারা হয়নি।
সাগর বেশ ভয় পেল এইটা ভেবে যে রাজা মনে হয় তাকে শাস্তি দিবে। তবুও সে গেল রাজ দরবারে। তখন সবার চারাই রাজা দেখেছে। ঠিক তখনি সাগরের চারা টি রাজা দেখে অবাক। তখন কিছুই বলেননি রাজামশায়! 
একটু পরে যখন রায় দেবার পালা তখন রাজা মহাশয় বলেন সাগরই হবে রাজা! সবাই তো অবাক! তখন রাজা অট্রহাসি দিয়ে জানালো আমি তোমাদের সবাইকে নষ্ট বীজ দিয়ে ছিলাম আর তোমরা তা টের পেয়ে হাট থেকে ভাল বীজ কিনে সেগুলো পরিচর্চা করে বড় করেছো। কিন্তু সাগর আমার প্রতি অন্ধ বিশ্বাসে নষ্ট বীজগুলোই লাগিয়েছে।
সাগর তোমাদের মত অসৎ পথ বেছে নেয়নি। তাই আমি তাকে রাজা হিসেবেই ঘোষনা করলাম।তিনি আরো বলেন, একজন রাজার সবচেয়ে বেশি গুন থাকতে হয় সততা এবং পিছপা না হওয়ার মন-মানসিকতা।
লেখাটা হইতবা রুপকথার গল্প তবে আমাদের বর্তমান সমাজে এ জাতীয় কর্মকান্ড বেরেই চলছে! সততার থেকে আমি বা আমরা ঠিক ১শত মাইল দূরে অবস্তান করছি! কেন জানি আমাদের ধৈর্য্য শক্তি কমে গিয়ে হিংসুটে জীবন যাপন করছি! ভাইয়ের ক্ষতি কামনায় আরেক ভাই জিলাপী বিতরন করছি ! দিনরাত নিজ ভাইকে গর্তে ডুকানোর চেষ্টায় মগ্ন! তবে এ হিংসুটে কর্মকান্ড কতটুকু যুক্তিযুক্ত বলে আপনারা মনে করছেন? 
লেখকঃ ইফতেহার রিফাত জেলা প্রতিনিধি- বাংলারচোখ ডটকম।  

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Somoynewsbd24.Com